প্রকাশ: ২০ ফেব্রুয়ারি ২০২২ | ৭:৩১ পূর্বাহ্ণ আপডেট: ২০ ফেব্রুয়ারি ২০২২ | ৭:৩১ পূর্বাহ্ণ

এই পোস্টটি 235 বার দেখা হয়েছে

ষোল মালা জপ সম্পন্ন করার পরই ব্যস্ত হয়ে উঠে গিয়ে দৈনন্দিন কাজে লিপ্ত হয়ে পড়া উচিত নয়। অন্ততঃপক্ষে পাঁচ মিনিট শান্ত ভাবে বসুন। চোখ বন্ধ করে রাধিকা-শ্যামের উজ্জ্বল রূপের ধ্যানে মন নিবদ্ধ করুন এবং তাঁদের অনন্ত মাধুর্যময় প্রেম ও করুণার কথা স্মরণ করতে থাকুন। আপনি তাঁদের সম্পত্তি, তাঁরা আপনার সর্বস্ব। এবার রাধা-শ্যাম, আপনার নিজ ইষ্ট-বিগ্রহ কিংবা শ্রীনামপ্রভুর পাদপদ্মে আপনার নিজের একটি ছোট্ট প্রার্থনা নিবেদন করুন। (নীচে একটি নমুনা দেওয়া হলো)। তারপর শ্রীনামপ্রভু ও গুরুদেবকে প্রণতি নিবেদন করুন, এরপর দিনের কার্যাবলী শুরু করুন।
“হে পরম করুণাময় সৌন্দর্যসারবিগ্রহ, রাধিকা-শ্যাম। কৃপাপূর্বক আমার এই জপ নিবেদন গ্রহণ করো। তোমাদের প্রীতিবিধানের জন্য আমি আমার সাধ্যমত করেছি। অনুগ্রহপূর্বক আমার সকল অপরাধ ও অমনোযোগ ক্ষমা করো। দয়া করে আমার সকল অপরাধ কেবল তোমাদের সেবা সম্পাদনে নিয়োজিত করো এবং কিভাবে আমি তোমাদের প্রতি আমার প্রেমানুরাগ প্রতিনিয়ত বর্ধিত করতে পারি, সে বিষয়ে আমাকে শিক্ষা দান করো। দয়া করে আমাকে মায়ার আক্রমন হতে রক্ষা করো। করুণাপূর্বক আমাকে সারা দিন অনুক্ষণ তোমাদের সুন্দর নাম, রূপ, লীলা স্মরণে নিমগ্ন থাকতে সাহায্য করো।” হরে কৃষ্ণ


চৈতন্য সন্দেশ ফেব্রুয়ারী ২০২২ প্রকাশিত
সম্পর্কিত পোস্ট

‘ চৈতন্য সন্দেশ’ হল ইস্‌কন বাংলাদেশের প্রথম ও সর্বাধিক পঠিত সংবাদপত্র। csbtg.org ‘ মাসিক চৈতন্য সন্দেশ’ এর ওয়েবসাইট।
আমাদের উদ্দেশ্য
■ সকল মানুষকে মোহ থেকে বাস্তবতা, জড় থেকে চিন্ময়তা, অনিত্য থেকে নিত্যতার পার্থক্য নির্ণয়ে সহায়তা করা।
■ জড়বাদের দোষগুলি উন্মুক্ত করা।
■ বৈদিক পদ্ধতিতে পারমার্থিক পথ নির্দেশ করা
■ বৈদিক সংস্কৃতির সংরক্ষণ ও প্রচার। শ্রীচৈতন্য মহাপ্রভুর নির্দেশ অনুসারে ভগবানের পবিত্র নাম কীর্তন করা ।
■ সকল জীবকে পরমেশ্বর ভগবান শ্রীকৃষ্ণের কথা স্মরণ করানো ও তাঁর সেবা করতে সহায়তা করা।
■ শ্রীচৈতন্য মহাপ্রভুর নির্দেশ অনুসারে ভগবানের পবিত্র নাম কীর্তন করা ।
■ সকল জীবকে পরমেশ্বর ভগবান শ্রীকৃষ্ণের কথা স্মরণ করানো ও তাঁর সেবা করতে সহায়তা করা।