পুনর্জন্মে বিশ্বাস আমেরিকাতে বাড়ছে

প্রকাশ: ১৭ মে ২০২৩ | ৭:১২ পূর্বাহ্ণ আপডেট: ১৭ মে ২০২৩ | ৭:১৩ পূর্বাহ্ণ

এই পোস্টটি 132 বার দেখা হয়েছে

পুনর্জন্মে বিশ্বাস আমেরিকাতে বাড়ছে

মেরিয়াম অভিধান অনুসারে পুনর্জন্ম হচ্ছে নতুন শরীরে পুনরায় জন্ম অথবা নতুন জীবন। বিশেষ করে একটি নতুন মানব শরীরে আত্মার পুনর্জন্ম। এ প্রাচীন বিশ্বাসটি ৮০ কোটি হিন্দুদের মধ্যে বিরাজমান। মরটন তাঁর একটি বইতে বলেছেন, কিছু বিজ্ঞানী আশা করছে যে, টম ক্রুজ এবং কেটাই হোমলেস এর চমৎকার কন্যা সুরী হচ্ছেন ২০ বছর আগে মারা যাওয়া এল. রন হুবার্ড এর পুনর্জন্ম। কিন্তু সাইনটোলজি নামের একটি চার্চ এ বাক্যকে কোনভাবেই পুনর্জন্মকে বিশ্বাস করেনা। আবার অনেক বিজ্ঞানী ধারণা করছেন যে সুরীর পুনর্জন একটা অন্ধ বিশ্বাস। এটা হচ্ছে একটা সাড়াজাগানো পপস্টার ম্যাডোনা বলেছিলেন তিনি এতে বিশ্বাস করেন। তেমনি হাডসনও বলেছিলেন। ২০০৩ এর হ্যারিস পোল অনুসারে ২৫ থেকে ২৯ বছর বয়স্ক ৪০ ভাগ মানুষ বিশ্বাস করে যে, মৃত্যুর পরে তারা নতুন একটি ভিন্ন দেহে ফিরে আসে। “সাইনোটোরজি’ এবং ‘কাব্বালা’ হচ্ছে পুনর্জন্মের উপর লিখিত দুটি বই। বই দুটি লিখেছেন বিখ্যাত মনোবিজ্ঞানী ব্রায়ান ওয়াইস এবং শল্যচিকিৎসক করল বউম্যান। এ দু’জন বিতর্ক করেছেন যে, মানুষ পশ্চাদগতি বা পূর্বচিন্তনবিদ্যা দ্বারা আনন্দ খুঁজে পেতে পারে। যার মাধ্যমে মানুষ তার পূর্বজন্মের সমস্যা থেকে শিক্ষা নিতে পারে। ওয়াইস আবার সম্মুখবিদ্যার উপর আলোচনা করেছেন অর্থাৎ মানুষ এর মাধ্যমে তাদের ভবিষ্যৎ দেখতে পারে। স্টিফেন প্রোতেরো যিনি বোস্টন বিশ্ববিদ্যালয়ে হিন্দুধর্মের অধ্যক্ষ। তিনি সুন্দর একটি তত্ত্ব প্রদান করেছেন যে, আমেরিকানদের পুনর্জন্মে আগ্রহ রয়েছে। যতই আমেরিকাতে জীবন উন্নত হচ্ছে, জনগণ প্রতিনিয়ত অনেক উন্নতি করছে এবং অধিক শিক্ষিত হচ্ছে ততই পৃথিবীতে চিরকাল বেঁচে থাকার। ধারণা অর্থাৎ পৃথিবীতে পুনরায় ফিরে আসার ধারণা স্বর্গে যাওয়ার ধারণা থেকেও বাড়ছে। প্রোথেরো বলেছেন আমরা এখানেই থাকতে চাই এখানেই পুনর্জনা জনপ্রিয়তা পাচ্ছে কারণ মানুষ আবার ফিরে আসতে চায় এবং বাস করতে চায়। আমেরিকায় বসবাসকারী অধিকাংশ খ্রিস্টানরা পুনর্জন্মের তেমন বিশ্বাস করে না। ঐতিহ্যগতভাবে খ্রিস্টানরা বিশ্বাস করে যে, মৃত্যুর পরে দেহ এবং আত্মা প্রাথমিকভাবে আলাদা হয়ে যায় ধ্বংসের জন্য। তাদের মতে যদি আত্মা পৃথিবীতে ফিরে আসে তাহলে কবর থেকে কোন দেহটা তাদের এটা খুঁজে পাওয়া দুস্কর। যদি সবাই বসবাস করতে চায় তাহলে সবগুলো দেহের কি হবে। প্রোথেরো বলেছেন খ্রিস্টানদের মধ্যে পুনর্জন্মের বিশ্বাসটা হচ্ছে আত্মার ঐ একই দেহের ভিতর প্রবেশ করা। যে কারণে বর্তমানে এক তৃতীয়াংশ আমেরিকান বিশ্বাস করে যে, তাদের আত্মা পার্থিব দেহ নয়, যা ৩০ বছর আগে বিশ্বাস করা হত না। প্রোথেরো বলেন, এ কারণেই বর্তমানে আমেরিকানরা সনাতন ধর্ম গ্রহণ করছে।

হরেকৃষ্ণ॥  

চৈতন্য সন্দেশ অ্যাপ ডাউনলোড করুন :https://play.google.com/store/apps/details?id=com.differentcoder.csbtg

Hare Krishna Thanks For Reading

সম্পর্কিত পোস্ট

‘ চৈতন্য সন্দেশ’ হল ইস্‌কন বাংলাদেশের প্রথম ও সর্বাধিক পঠিত সংবাদপত্র। csbtg.org ‘ মাসিক চৈতন্য সন্দেশ’ এর ওয়েবসাইট।
আমাদের উদ্দেশ্য
■ সকল মানুষকে মোহ থেকে বাস্তবতা, জড় থেকে চিন্ময়তা, অনিত্য থেকে নিত্যতার পার্থক্য নির্ণয়ে সহায়তা করা।
■ জড়বাদের দোষগুলি উন্মুক্ত করা।
■ বৈদিক পদ্ধতিতে পারমার্থিক পথ নির্দেশ করা
■ বৈদিক সংস্কৃতির সংরক্ষণ ও প্রচার। শ্রীচৈতন্য মহাপ্রভুর নির্দেশ অনুসারে ভগবানের পবিত্র নাম কীর্তন করা ।
■ সকল জীবকে পরমেশ্বর ভগবান শ্রীকৃষ্ণের কথা স্মরণ করানো ও তাঁর সেবা করতে সহায়তা করা।
■ শ্রীচৈতন্য মহাপ্রভুর নির্দেশ অনুসারে ভগবানের পবিত্র নাম কীর্তন করা ।
■ সকল জীবকে পরমেশ্বর ভগবান শ্রীকৃষ্ণের কথা স্মরণ করানো ও তাঁর সেবা করতে সহায়তা করা।