ইস্‌কনের ভ্রাম্যমাণ চিকিৎসা সেবা

0
88

স্নিগ্ধাময়ী সুদেবী দেবী দাসী আন্তর্জাতিক কৃষ্ণভাবনামৃত সংঘ (ইস্‌কন) এর ‘ইন্ডিয়া ট্রাইবাল কেয়ার ট্রাস্ট’ (আই টি সিটি) সম্প্রতি বিনামূল্যে পশ্চিমবঙ্গের ঝাড়গ্রামের আদিবাসী সম্প্রদায়ের মানুষদের ভ্রাম্যমাণ মেডিকেল সেবা প্রদান করে। ইন্ডিয়া ট্রাইবাল কেয়ার ট্রাস্ট এর প্রতিষ্ঠাতা শ্রীমৎ ভক্তি পুরুষোত্তম স্বামীর সার্বিক তত্ত্বাবধানে দীর্ঘ দিন ধরে ভারতের পশ্চিমবঙ্গ ও আসামসহ বিভিন্ন রাজ্যের আদিবাসী সম্প্রদায়ের মানুষদের শিক্ষা, স্বাস্থ্যসেবাসহ আধ্যাত্মিক সেবা প্রদান করে আসছে। ইন্ডিয়া ট্রাইবাল কেয়ার ট্রাস্ট হচ্ছে এমন একটি সংস্থা যা উপজাতীয় সম্প্রদায়ের লোকদের জন্য একটি টেকসই, সমৃদ্ধ, স্বাস্থ্যকর, শিক্ষিত ও সাংস্কৃতিকভাবে মজুবত জীবন ধারা নিশ্চিত করা, যারা বহু দিন যাবৎ অবহেলিত ও উপেক্ষিত ছিল। এই ট্রাস্টের লক্ষ্য হল নৈতিক ও আধ্যাত্মিকভাবে সমৃদ্ধশালী এমন একটি জীবন প্রণালী গড়ে তোলা, যার ফলে মানুষ প্রকৃত সুখ ও শান্তি লাভ করতে সক্ষম হয়। এই ট্রাস্ট শিশুদের আদর্শ শিক্ষা প্রদানের মাধ্যমে একটি নৈতিকতাসম্পন্ন আর্দশ নাগরিক সমাজ গড়ে তোলতে সহায়তা করে চলেছে।
ইতিমধ্যে ট্রাস্টটি এই উপজাতি সম্প্রদায়ের মানুষদের সুস্বাদু কৃষ্ণপ্রসাদ প্রদানের মাধ্যমে জীবন ধারণের খুবই অত্যাবশ্যকীয় কার্য সম্পাদন করে আসছে। তারা শিশুদের শিক্ষা, স্বাস্থ্য সেবা ও আধ্যাত্মিক দর্শন দিয়ে মানুষের জীবনকে উন্নীতকরণ করে চলেছে। এই ট্রাস্টটি শুধু মাত্র ভারতে নয় বরং দক্ষিণ এশিয়ার অবহেলিত সম্প্রদায়ের বিশেষ যত্ন গ্রহণে সর্বতোভাবে আত্ম নিবেদিত। এই ট্রাস্টটি কৃষির সঠিক ও সুষ্ঠ প্রয়োগের মাধ্যমে ‘সরল জীবন ও উন্নত চিন্তার’ নীতির সফল বাস্তবায়ন করতে সক্ষম হয়েছে।
ইস্‌কন প্রতিষ্ঠাতা আচার্য কৃষ্ণকৃপাশ্রীমূর্তি শ্রীল অভয়চরণারবিন্দ ভক্তিবেদান্ত স্বামী প্রভুপাদ ‘সরল জীবন ও উন্নত চিন্তার’ যে বীজ বপন করে গিয়েছেন, ধীরে ধীরে সমগ্রবিশ্বে তার সঠিক ও সুষ্টু বাস্তবায়ন হতে চলেছে। ইতি মধ্যে ইউরোপ, আমেরিকা, আফ্রিকাসহ প্রায় সব কয়টি মহাদেশে এই নীতির সফল বাস্তবায়ন হয়ে আসছে।
সম্প্রতি ইন্ডিয়া ট্রাইবাল কেয়ার ট্রাস্টকে আমেরিকাভিক্তিক দাতব্য প্রতিষ্ঠান ‘ভারত উন্নয়ন ও ত্রাণ তাহবিল (আই ডি আর এফ) একটি বাস গাড়ি প্রদান করে, যাতে এই সমস্ত অবহেলিত জনগোষ্ঠীর সঠিক উন্নতি ত্বরান্বিত হয়।
তাদের এই মহৎ প্রচেষ্টার ভূয়শী প্রশংসা করে শ্রীমৎ ভক্তিপুরুষোত্তম স্বামী বলেন, “গত ৫-৬ বছর ধরে আমরা আদিবাসীদের সেবা করে যাচ্ছি। উপজাতির লোকেরা খুব অবহেলিত। ট্রাস্টটি প্রধান ৫টি ক্ষেত্রে বিশেষভাবে যত্ন নিচ্ছে-১.বাসস্থানের জন্য সাহায্য, ২.স্বাস্থ্যসেবা, ৩.শিক্ষাগত যত্ন, ৪.সামাজিক যত্ন, ৫.মানসিক যত্ন ও আধ্যাত্মিক যত্ন। তাই এই একটি বাস আমরা আমেরিকার পৃষ্ঠপোষকতায় পরিচালিত ‘ভারত উন্নয়ন ও ত্রাণ তহবিল’ এর নিকট হতে পেয়েছি। এটি তারা আমাদের এই উদ্দেশ্যের সফল বাস্তবায়নের জন্য, অনুদান হিসেবে দিয়েছে। তাই আন্তর্জাতিক কৃষ্ণভাবনামৃত সংঘ (ইস্‌কন) এই জন্য তাদের নিকট বিশেষভাবে কৃতজ্ঞ।”
তারা এই মেডিকেল বাসটিকে একটি ভ্রাম্যমাণ মেডিকেল ক্লিনিক হিসেবে ব্যবহার করার লক্ষ্যে ডাক্তার, নার্স ও ওষুধ পর্যাপ্ত পরিমাণে রেখেছে। এছাড়া একটি ইসিজি মেশিনসহ পর্যাপ্ত অক্সিজেন রয়েছে যাতে যে কোনো জরুরী পরিস্থিতিতে এটি একটি অ্যাম্বুলেন্স হিসেবে রোগীদের হাসপাতালে স্থানান্তরিত করতে পারে এবং পথে তাৎক্ষণিক চিকিৎসা প্রদান করা সম্ভব হয়। বর্তমানে এটি বিনামূল্যে স্বাস্থ্য সেবা ক্যাম্প চালু করেছে ।


 

চৈতন্য সন্দেশ মার্চ ২০২২ প্রকাশিত

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here