সিলেটের সবথেকে শ্রেষ্ঠ ও আকর্ষণীয় অনুষ্ঠান

0
27

দেবামৃত নিতাই দাস: পরমেশ্ব ভগবান শ্রীকৃষ্ণের শুভ আবির্ভাব তিথি ও ইস্‌কন প্রতিষ্ঠাতা আচার্য শ্রীল প্রভুপাদের ১২৫তম শুভ আবির্ভাব তিথি উপলক্ষ্যে ইস্‌কন, সিলেট ৫দিন ব্যাপী বিশেষ অনুষ্ঠানমালার আয়োজন করেন। গত ২৭ আগস্ট, শুক্রবার শ্রীল প্রভুপাদের জন্ম জয়ন্তী উপলক্ষ্যে সারা মন্দির দৃষ্টিনন্দন আলোকসজ্জা করা হয়। ১২৫টি মৃদঙ্গ সহযোগে শ্রীল প্রভুপাদ রথযাত্রার মাধ্যমে অনুষ্ঠানের শুভ সূচনা হয়। হাজারো ভক্তের উপস্থিতিতে শ্রীমৎ ভক্তিঅদ্বৈত নবদ্বীপ স্বামী মহারাজের নেতৃত্বে শ্রীল প্রভুপাদকে রথে বসিয়ে মন্দির অভ্যন্তরে রথযাত্রা পালিত হয়। জন্মাষ্টমীর দিনে ভগবান শ্রীকৃষ্ণের মহাঅভিষেক, সংক্ষিপ্ত আলোচনা সভা, ১২৫টি বিশেষ প্রদীপ দ্বারা ভগবান শ্রীকৃষ্ণের মহা-আরতি, মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক সন্ধ্যা, বৈদিক নাটক ইত্যাদির মাধ্যমে কয়েক সহস্রাধিক ভক্তের মহামিলন। শ্রীল প্রভুপাদের ব্যাসপূজার দিন শ্রীল প্রভুপাদকে হাজারো ভক্তের উষ্ণ অভ্যর্থনা, শ্রীল প্রভুপাদকে ১২৫টি উপহার সামগ্রী প্রদান, শ্রীল প্রভুপাদকে ১১০৮টি লাল গোলাপ অর্পণ, ২১২৫টি আইটেম ভোগ অর্পন, ১২৫ এর অধিক ভক্তবৃন্দ বিশেষ আরতি প্রদান, ১২৫ পাউণ্ড ওজনের কেক অর্পণ, ১২৫জনের সমন্বয়ে
শ্রীমদ্ভগবদ্গীতা অধ্যয়ন, ব্যাসপূজা উপলক্ষ্যে শ্রীল প্রভুপাদের হৃদয়স্পর্শী ১২৫টি লীলা সমূহের ভিত্তিতে “শ্রীল প্রভুপাদ অমৃতলহরী” গ্রন্থ প্রকাশ, অভয়চরণ ভয়েসের ১২৫জন শিক্ষার্থীদের পরিবেশনায় বিশেষ ড্রোন প্রদর্শনী, যদি প্রভুপাদ না হইত ভজন ও শ্রীল প্রভুপাদের প্রণাম মন্ত্র পাঠ, ৫দিন ব্যাপী শ্রীল প্রভুপাদের শিষ্যবৃন্দের উপস্থিতিতে জুমের মাধ্যমে “শ্রীল প্রভুপাদ কথামৃত”, ভজন-কীর্তন, সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান, নাটক ও সহস্রাধিক ভক্তের মধ্যে মহাপ্রসাদ প্রসাদ বিতরণ করা হয়।
শ্রীল প্রভুপাদের আবির্ভাব তিথি উপলক্ষ্যে ইস্‌কন ইয়ূথ ফোরাম, সিলেট ও গৌরদেশ টিভির উদ্যোগে দেশ-বিদেশের ভক্তদের নিয়ে শ্রীল প্রভুপাদের জীবনী গ্রন্থ অবলম্বনে “মেগা কুইজ প্রতিযোগিতার” আয়োজন করা হয়। এতে অংশগ্রহণ করেন প্রায় ১৫শ শিক্ষার্থীবৃন্দ। গত ৩০ আগস্ট শ্রীমৎ ভক্তি পুরুষোত্তম স্বামী মহারাজের উপস্থিতিতে ভার্চুয়ালী কুইজের পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠান সম্পন্ন হয়। এসময় আরো উপস্থিত ছিলেন, শ্রীমৎ ভক্তি অদ্বৈত নবদ্বীপ স্বামী মহারাজ, শ্রীপাদ্ জগৎগুরু গৌরাঙ্গ দাস ব্রহ্মচারী, শ্রীপাদ্ দেবর্ষি শ্রীবাস দাস ব্রহ্মচারী প্রমূখ। কুইজে বিজয়ীরা হচ্ছেন, শ্রী বিদ্যুৎ দেবনাথ (১ম), শ্রীমতি ববিতা রাণী রায় (২য়) এবং যৌথভাবে (৩য়) স্থান অর্জন করেছেন, শ্রীমতি সুস্মিতা সরকার ও শ্রী অরুন কান্তি রায়। তাদের মধ্যে ল্যাপটপ, স্মার্টফোন ও ট্যাব উপহার হিসেবে প্রদান করা হয়। এছাড়াও ১২৫জন অংশগ্রহণকারীকে বিশেষ সম্মাননা প্রদান করা হয়।
জন্মাষ্টমী অনুষ্ঠানে অতিথিবৃন্দের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, ভারতীয় হাই কমিশন, সিলেটের সহকারী কমিশনার শ্রী নীরাজ কুমার যশওয়াল, আওয়ামীলীগের সাবেক কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক জনাব মিসবাহ উদ্দিন সিরাজ, শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ^বিদ্যালয়ের ইংরেজি বিভাগের বিভাগীয় প্রধান ড. হিমাদ্রী শেখর রায়। এছাড়াও ইস্্কনের বরিষ্ঠ ভক্তবৃন্দ সহ সামাজিক ও রাজনৈতিক ব্যক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন। উপস্থিত ভক্তবৃন্দরা জানান, ইস্্কন সিলেট ইতিপূর্বে যত অনুষ্ঠান করেছেন, সেসব থেকে শ্রেষ্ঠ ও আকর্ষণীয় অনুষ্ঠান হয়েছে এবারেরটি।


চৈতন্য সন্দেশ অক্টোবর-২০২১

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here