প্রথম যাত্রায় স্মরণে মালয়েশিয়ার শ্রীল প্রভুপাদের সম্মানে ডাকটিকিট প্রকাশ

প্রকাশ: ২৬ আগস্ট ২০২১ | ১০:১৫ পূর্বাহ্ণ আপডেট: ২৬ আগস্ট ২০২১ | ১০:১৫ পূর্বাহ্ণ

এই পোস্টটি 228 বার দেখা হয়েছে

প্রথম যাত্রায় স্মরণে মালয়েশিয়ার শ্রীল প্রভুপাদের সম্মানে ডাকটিকিট প্রকাশ

ইস্‌কন নিউজ: শ্রীল প্রভুপাদ ১৯৭১ সালের ৩-৮ মে মালয়েশিয়ায় প্রথম অবস্থান করেছিলেন। তার এই স্মরণীয় যাত্রায় ৫০ বছর পূর্তি উপলক্ষ্যে এক বিশেষ ডাকটিকিট প্রকাশ করা হয় । মালয়েশিয়ার ডাকবিভাগ একটি ব্যক্তিগত ডাকটিকিট প্রকাশ করে। এটি মালেশিয়া সরকার কর্তৃক জনসাধারণের ব্যবহারের জন্য প্রকাশিত কেনো সরকারি ডাকটিকিট নয়। এই সফরে শ্রীল প্রভুপাদ কুয়ালালামপুর থেকে তেলুক ইন্তান, ইপোহ এবং পেনাং প্রভৃতি স্থান ভ্রমণ করেছিলেন। বিশ্বের অন্যান্য স্থানের মতো মালয়েশিয়ায় শ্রীল প্রভুপাদ শ্রীমদ্ভগবদ্গীতার শিক্ষা প্রদান করে সকলকে অনুপ্রাণিত করতে সফল হন। তাঁর জীবন ভগবদ্গীতার বাণী বিশ্বের প্রতিটি প্রান্তে ছড়িয়ে দেওয়ার জন্য নিবেদিত। এই সুবর্ণ জয়ন্তী অনুষ্ঠানটি ২০ জুলাই, ২০২১ এ অনলাইনে উদযাপিত হয়েছিল। আঞ্চলিক নেতৃবৃন্দ এবং বিশ্বব্যাপী ভক্তবৃন্দের সাথে ইস্‌কন মালেশিয়ার জিবিসি শ্রীমৎ জয়পতাকা স্বামী এবং শ্রীমৎ ভানু স্বামী ও প্রভাবিষ্ণু প্রভু অনলাইনে উপস্থিত ছিলেন। এই অনুষ্ঠানের প্রধান আকর্ষণ ছিল শ্রীল প্রভুপাদের স্মারক ডাকটিকিট প্রকাশ। এই ডাকটিকিটটি মালয়েশিয়ার ডাক বিভাগ অনুমোদন করেছিল। বিভিন্ন অনুষ্ঠানের শেষে তাঁরা শ্রীল প্রভুপাদের দশটি স্মারক ডাকটিকিট নিলাম করে। অনুষ্ঠান চলাকালীন তাঁরা ঘোষণা করে যে বিশ্বজুড়ে ভক্তরা এই স্মারকগুলি কিনতে পারেন। অনুষ্ঠানে এই স্মারক প্রাপ্তির ক্ষেত্রে বিশেষ কিছু শর্তাবলী প্রদান করা হয়। স্মারক প্রাপ্তির জন্য ৩১ আগস্ট ২০২১ এর মধ্যে যোগাযোগ করতে হবে। একটি সেটের মধ্যে ১০টি স্মারক রয়েছে যার প্রণামী নির্ধারণ করা হয়েছে ৫১ মালেশিয়ান রিংগিত, যা বাংলাদেশী মুদ্রায় প্রায় ১০২৬ টাকা।

সম্পর্কিত পোস্ট

‘ চৈতন্য সন্দেশ’ হল ইস্‌কন বাংলাদেশের প্রথম ও সর্বাধিক পঠিত সংবাদপত্র। csbtg.org ‘ মাসিক চৈতন্য সন্দেশ’ এর ওয়েবসাইট।
আমাদের উদ্দেশ্য
■ সকল মানুষকে মোহ থেকে বাস্তবতা, জড় থেকে চিন্ময়তা, অনিত্য থেকে নিত্যতার পার্থক্য নির্ণয়ে সহায়তা করা।
■ জড়বাদের দোষগুলি উন্মুক্ত করা।
■ বৈদিক পদ্ধতিতে পারমার্থিক পথ নির্দেশ করা
■ বৈদিক সংস্কৃতির সংরক্ষণ ও প্রচার। শ্রীচৈতন্য মহাপ্রভুর নির্দেশ অনুসারে ভগবানের পবিত্র নাম কীর্তন করা ।
■ সকল জীবকে পরমেশ্বর ভগবান শ্রীকৃষ্ণের কথা স্মরণ করানো ও তাঁর সেবা করতে সহায়তা করা।
■ শ্রীচৈতন্য মহাপ্রভুর নির্দেশ অনুসারে ভগবানের পবিত্র নাম কীর্তন করা ।
■ সকল জীবকে পরমেশ্বর ভগবান শ্রীকৃষ্ণের কথা স্মরণ করানো ও তাঁর সেবা করতে সহায়তা করা।