ছয়’শ কোটি টাকার বৈদিক মিউজিয়াম

প্রকাশ: ৭ মে ২০১৮ | ১২:০৮ অপরাহ্ণ আপডেট: ৭ মে ২০১৮ | ১২:১৩ অপরাহ্ণ

এই পোস্টটি 1506 বার দেখা হয়েছে

ছয়’শ কোটি টাকার বৈদিক মিউজিয়াম

আপনি কি একদিনে, একই স্থানে বসে ভারতের সমস্ত তীর্থ দর্শনের কথা ভাবতে পারেন? বা এও কি চিন্তা করতে পারেন ভাগবত, মহাভারত, রামায়নসহ অন্য পুরাণ সমূহের কাহিনী ছবির মাধ্যমে দর্শন করবেন? এই অভাবনীয় সুবিধাটি করে দিয়েছে কুণ্ড সত্যনারায়ণ কলা ধাম্ ম বৈদিক মিউজিয়াম হায়দারাবাদের প্রধান শহর থেকে ৬০ কিলোমিটার দূরে ১৮ একর জমির উপর মিউজিয়ামটি গড়ে তোলা হয়েছে। অন্ধ্র প্রদেশের গভর্নর মিউজিয়ামটি উদ্বোধন করেন। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের এক বক্তৃতায় গভর্নর বলেন, “এই মিউজিয়ামটি শুধুমাত্র শিক্ষাগত দিক এবং সৌন্দর্য্যে অদ্বিতীয় নয় প্রকৃতপক্ষে, এটি আমাদের উন্নত বৈদিক সংস্কৃতির প্রতিচ্ছবি হিসেবে স্বীকৃত হবে। মিউজিয়ামটিতে যা আছে –
১। রামায়ণ মহাভারত, শ্রীমদ্ভাবগত সহ বিভিন্ন পৌরাণিক কাহিনী সমন্বিত ভাস্কর্য। ২। বিখ্যাত মন্দির বা তীর্থসমূহের প্রতিভূ। ৩। রাম-রাবণ যুদ্ধের কাহিনীর উপর ভিত্তি করে বিগ্রহ স্থাপন। ৪। সমূদ্র মন্থনের ভাস্কর্য। ৫। অনন্ত নাগের উপর শায়িত মহাবিষ্ণু। ৬। মিউজিয়ামের প্রধান আকর্ষণ হচ্ছে ৩৬ ফুট উঁচু কুরুক্ষেত্রে ভগবানের অর্জুনকে গীতা দানের বিগ্রহ এবং যুদ্ধের জন্য দু’পক্ষীয় সৈন্যের প্রস্তুতি। উল্লেখ্য, বিষ্ময়কর এ বৈদিক মিউজিয়ামটি নির্মাণ করতে ছয়শ কোটি টাকা ব্যয় করা হয়।

আরও ছবি দেখতে ভিজিট করুন- http://surendrapuri.in/photo.html

 

সম্পর্কিত পোস্ট

‘ চৈতন্য সন্দেশ’ হল ইস্‌কন বাংলাদেশের প্রথম ও সর্বাধিক পঠিত সংবাদপত্র। csbtg.org ‘ মাসিক চৈতন্য সন্দেশ’ এর ওয়েবসাইট।
আমাদের উদ্দেশ্য
■ সকল মানুষকে মোহ থেকে বাস্তবতা, জড় থেকে চিন্ময়তা, অনিত্য থেকে নিত্যতার পার্থক্য নির্ণয়ে সহায়তা করা।
■ জড়বাদের দোষগুলি উন্মুক্ত করা।
■ বৈদিক পদ্ধতিতে পারমার্থিক পথ নির্দেশ করা
■ বৈদিক সংস্কৃতির সংরক্ষণ ও প্রচার। শ্রীচৈতন্য মহাপ্রভুর নির্দেশ অনুসারে ভগবানের পবিত্র নাম কীর্তন করা ।
■ সকল জীবকে পরমেশ্বর ভগবান শ্রীকৃষ্ণের কথা স্মরণ করানো ও তাঁর সেবা করতে সহায়তা করা।
■ শ্রীচৈতন্য মহাপ্রভুর নির্দেশ অনুসারে ভগবানের পবিত্র নাম কীর্তন করা ।
■ সকল জীবকে পরমেশ্বর ভগবান শ্রীকৃষ্ণের কথা স্মরণ করানো ও তাঁর সেবা করতে সহায়তা করা।