শ্রীকৃষ্ণের পুষ্যাভিষেক

প্রকাশ: ২০ জানুয়ারি ২০১৯ | ১১:৩১ পূর্বাহ্ণ আপডেট: ২৮ জানুয়ারি ২০২১ | ৪:০৮ পূর্বাহ্ণ

এই পোস্টটি 1658 বার দেখা হয়েছে

শ্রীকৃষ্ণের পুষ্যাভিষেক

পুষ্যাভিষেক হচ্ছে ভগবান শ্রীকৃষ্ণের উদ্দেশ্যে সবর্তোভাবে উৎসর্গ করার উৎসবগুলির মধ্যে অন্যতম একটি উৎসব। সাধারণ শীতকালে বিভিন্ন ধরনের ফুল ফোটার সময়। এই ফুলগুলি দেখতে অত্যন্ত মনোমুগ্ধকর ও সুগন্ধিযুক্ত। আর এই আকর্ষনীয় ফুলগুলি শ্রীকৃষ্ণেকে সন্তুষ্টি বিধানার্থে এমনভাবে অর্পন করা হয় যে, যার ফলে শ্রীবিগ্রহগণের অভিষেক সাধিত হয় এবং ফুলে ফলে শ্রীবিগ্রহগণ ঢাকা পড়ে। যা শ্রীকৃষ্ণকে ঋতু অনুসারে সবচেয়ে সুন্দর মনোমুগ্ধকর, আকর্ষণীয় ও ভাল বস্তুটি নিবেদনের শিক্ষা প্রদান করে। এই রকম সবচেয়ে ভাল বস্তু নিবেদনের শিক্ষা আমরা ভগবান শ্রীকষ্ণের মহান মহান ভক্তদের জীবন চরিত্রে দেখতে পাই। যেমন সবচেয়ে সুগন্ধিযুক্ত অগুরু এবং চন্দন যা শুধু মথুরা রাজা কংসের জন্য অতি যত্নের সাথে পুষ্প প্রস্তুত করে নিয়ে যেত। পরে কংসের পরিবর্তে শ্রীকৃষ্ণকে সমস্ত সুগন্ধিযুক্ত চন্দন অর্পন করে তাঁর কৃপা কণা লাভ করে। একইভাবে বৃদ্ধা ফলওয়ালী যিনি বৃন্দাবনের বিভিন্ন বাড়ি বাড়ি গিয়ে ফল বিক্রি করতেন। তিনিও তার ঝুড়ির সমস্ত ফল শ্রীকৃষ্ণকে নিবেদন করে তাঁর বিশেষ করুনা লাভ করে। অন্যদিকে রামভক্ত নিজে একটু করে খেয়ে বাছাই করে শ্রীরামের জন্য জমা করেছিলেন আর শ্রীরামচন্দ্র তা প্রীতিভাবে গ্রহণ করে সৌভরিকে করুনা করেন। এইভাবে ভগবানকে নিবেদন করার ঘটনা বহু ভক্তের জীবনীতে দেখা যায়। তারই পরিবর্তে বর্তমানে ইস্‌কন মন্দিরগুলি ভগবান শ্রীকৃষ্ণকে পুষ্প নিবেদনের উৎসবটি আড়ম্বর পূর্ণভাবে পালন করে আসছে এবং উৎসবটি জানুয়ারি ২১ তারিখে সেই দিন ইস্কন মন্দির গুলিতে নানা রকম আয়োজন থাকে। পুষ্প দিয়ে মহাঅভিষেকের পাশা পাশি থাকে দিনব্যাপী হরিনাম সংকীর্তন, কৃষ্ণকথা পরিবেশন এবং কৃষ্ণ প্রসাদ বিতরণ ইত্যাদি এই উৎসবে আপরা প্রতেকেই অংশগ্রহন করে ভগবান শ্রীকৃষ্ণেকে সবর্তো উৎসর্গ করে যে করুণা লাভ হয় তার অংশীদারি হতে পারেন।

এজন্য আন্তজার্তিক কৃষ্ণভাবনামৃত সংঘ (ইসকন) নন্দনকানন ‘শ্রীশ্রী রাধামাধব মন্দির`কর্তৃক এক প্রেমময় পুষ্পাভিষেকের আয়োজন করা হয়েছে।যার মাধ্যমে আমরা প্রেমসহকারে ভগবানকে পুষ্প নিবেদন করতে পারব। উক্ত অনুষ্ঠানে আপনারা সকলেই নিমন্ত্রিত।যারা আসতে পারবেন না তারা নিজ নিজ জেলায় ইসকন মন্দিরে গিয়ে ভালবাসার মাধ্যমে ভগবানকে পুষ্প নিবেদন করবেন। সকলেই কৃপা করবেন আমি যেন পূর্ণ ভালবাসার মাধ্যমে, প্রেমের মাধ্যমে ভগবানকে পুষ্প অর্পণ করতে পারি।হরে কৃষ্ণ

(মাসিক চৈতন্য সন্দেশ ২০১৪ ডিসেম্বর সালে প্রকাশিত)

এরকম চমৎকার ও শিক্ষণীয় প্রবন্ধ পড়তে চোখ রাখুন ‘চৈতন্য সন্দেশ’‘ব্যাক টু গডহেড’ -এ


Stay Connected:

fb.com/monthlycaitanyasandesh

youtube.com/caitanyasandesh

 

সম্পর্কিত পোস্ট

‘ চৈতন্য সন্দেশ’ হল ইস্‌কন বাংলাদেশের প্রথম ও সর্বাধিক পঠিত সংবাদপত্র। csbtg.org ‘ মাসিক চৈতন্য সন্দেশ’ এর ওয়েবসাইট।
আমাদের উদ্দেশ্য
■ সকল মানুষকে মোহ থেকে বাস্তবতা, জড় থেকে চিন্ময়তা, অনিত্য থেকে নিত্যতার পার্থক্য নির্ণয়ে সহায়তা করা।
■ জড়বাদের দোষগুলি উন্মুক্ত করা।
■ বৈদিক পদ্ধতিতে পারমার্থিক পথ নির্দেশ করা
■ বৈদিক সংস্কৃতির সংরক্ষণ ও প্রচার। শ্রীচৈতন্য মহাপ্রভুর নির্দেশ অনুসারে ভগবানের পবিত্র নাম কীর্তন করা ।
■ সকল জীবকে পরমেশ্বর ভগবান শ্রীকৃষ্ণের কথা স্মরণ করানো ও তাঁর সেবা করতে সহায়তা করা।
■ শ্রীচৈতন্য মহাপ্রভুর নির্দেশ অনুসারে ভগবানের পবিত্র নাম কীর্তন করা ।
■ সকল জীবকে পরমেশ্বর ভগবান শ্রীকৃষ্ণের কথা স্মরণ করানো ও তাঁর সেবা করতে সহায়তা করা।