যদি টিকে থাকতে চাও

প্রকাশ: ২২ জানুয়ারি ২০২৪ | ৬:৪৫ পূর্বাহ্ণ আপডেট: ২২ জানুয়ারি ২০২৪ | ৬:৪৫ পূর্বাহ্ণ

এই পোস্টটি 29 বার দেখা হয়েছে

যদি টিকে থাকতে চাও

যখনই আমরা কোন বিষয়ের বা ব্যক্তির গুরুত্ব বুঝি তখনই আমরা সে বিষয় বা ব্যক্তিকে প্রাধান্য দিই। যদি আমরা গুরুত্ব না বুঝি, স্বাভাবিকভাবে আমাদের হৃদয়ে আন্তরিকতা আসে না। বিভিন্ন ব্যক্তিকে তাদের গুরুত্ব অনুযায়ী একই কথা আমরা ভিন্ন ভিন্ন ভাব নিয়ে বলি।

আমাদের পরম সৌভাগ্যের ফলে আমরা যে সাধু-গুরু-বৈষ্ণবের সান্নিধ্যে এসেছি যখনই তা উপলব্ধি করি, তখনই ভগবদ্ভক্তিকে আমরা প্রাধান্য দিই। ভক্ত সঙ্গ লাভ, সদগুরুর আশ্রয়, হরিনাম গ্রহণ এগুলো আকস্মিক ঘটনা নয়। এর পেছনে অনেক ইতিহাস, বহু জন্মের সুকৃতির ফল এবং সাধু-গুরু-বৈষ্ণবের আশীর্বাদে আমরা এই সুবর্ণ সুযোগ পেয়েছি। আমাদের অত্যন্ত সাবধান থাকতে হবে যাতে কোনভাবে আমরা এই সুবর্ণ সুযোগকে সহজভাবে না গ্রহণ করি। শ্রীমন্মহাপ্রভু করুণার অবতার।

কোন বাছবিচার না করে হরিনাম গ্রহণের মাধ্যমে ভববন্ধন থেকে মুক্ত হয়ে আমাদের নিত্য আলয় ভগবদ্ধামে ফিরে যাওয়ার সুবর্ণ সুযোগ করে দিয়েছেন। এই সুবর্ণ সুযোগ এই দুর্লভ মানব জীবন যেন আমরা বৃথা নষ্ট না করি।

আমাদের মানসিকতা বা হৃদয়ের ইচ্ছা কার্যের মাধ্যমে প্রকাশ পায়। আমাদের প্রচেষ্টাই বলে দেবে যে আমরা ভগবদ্ভক্তির বিষয়ে কতটা আন্তরিক। শ্রীল প্রভুপাদ বারবার আমাদের সতর্ক করেছেন যাতে নিষ্ঠা সহকারে আমরা কৃষ্ণভাবনামৃতের নিয়ম-কানুন মেনে চলি এবং হৃদয় দিয়ে কমপক্ষে ১৬ মালা জপ করি।

“যদি কৃষ্ণভাবনামৃতে টিকে থাকতে চাও তাহলে গুরু এবং শাস্ত্রের প্রতি বিশ্বাস স্থাপন করতে হবে। সেইজন্য আমার গ্রন্থ পুঙ্খানুপুঙ্খভাবে অধ্যয়ন করতে হবে, কঠোরভাবে চারটি নিয়ম পালন করতে হবে এবং দশবিধ নামাপরাধ থেকে মুক্ত হয়ে ১৬ মালা জপ করতে হবে। এই সংস্থাকে এত সহজভাবে নিও না ।”

(শ্রীল প্রভুপাদের পত্র, ৩০শে অক্টোবর, ১৯৭৬)

“তুমি যদি ঐকান্তিক হও তবে এই সমস্ত নিয়মকানুনগুলো তোমায় কঠোরভাবে পালন করতে হবে। তারপর দীক্ষা নিও। আমার অনুরোধ, এই বিষয়টিকে একটি প্রহসনে পরিণত করো না। … দৃঢ়ব্রত হও, আমি এই জীবনেই ভগবদ্ধামে ফিরে যেতে চাই। একে বলে দৃঢ়ব্রত। অসুবিধা কোথায়? কোন অসুবিধা নেই। হরেকৃষ্ণ মহামন্ত্র জপ করো। ২/৩ ঘণ্টা লাগে ১৬ মালা জপ সমাপ্ত করতে। তোমার কাছে ২৪ ঘণ্টা রয়েছে। ঘুমকে হ্রাস করো। তুমি যদি ১৬ মালা জপ শেষ করতে না পারো সেদিন তোমার ঘুমানো উচিত নয়, প্রসাদ পাওয়া উচিত নয়। তুমি খেতে কেন ভুলে যাও না? হরেকৃষ্ণ জপ করতে কেন ভুলে যাও? এটি হচ্ছে অবহেলা, অপরাধ। পক্ষান্তরে তোমার ঘুম এবং খাবারকে ভুলে ১৬ মালা জপ সম্পন্ন করা উচিত। একে বলে দৃঢ়ব্রত। তোমাকে দীক্ষা নেওয়ার জন্য স্বাগত জানাচ্ছি। কিন্তু তুমি যদি অবহেলা করো, তুমি যদি এটিকে প্রহসনে পরিণত করো সেটা তোমার ব্যাপার। আমি তোমাকে কোনভাবেই রক্ষা করতে পারবো না।” …

(শ্রীল প্রভুপাদ, ২৮শে জানুয়ারি, ১৯৭৪, হাওয়াই)


মাসিক চৈতন্য সন্দেশ অক্টোবর ২০২২ হতে প্রকাশিত

সম্পর্কিত পোস্ট

‘ চৈতন্য সন্দেশ’ হল ইস্‌কন বাংলাদেশের প্রথম ও সর্বাধিক পঠিত সংবাদপত্র। csbtg.org ‘ মাসিক চৈতন্য সন্দেশ’ এর ওয়েবসাইট।
আমাদের উদ্দেশ্য
■ সকল মানুষকে মোহ থেকে বাস্তবতা, জড় থেকে চিন্ময়তা, অনিত্য থেকে নিত্যতার পার্থক্য নির্ণয়ে সহায়তা করা।
■ জড়বাদের দোষগুলি উন্মুক্ত করা।
■ বৈদিক পদ্ধতিতে পারমার্থিক পথ নির্দেশ করা
■ বৈদিক সংস্কৃতির সংরক্ষণ ও প্রচার। শ্রীচৈতন্য মহাপ্রভুর নির্দেশ অনুসারে ভগবানের পবিত্র নাম কীর্তন করা ।
■ সকল জীবকে পরমেশ্বর ভগবান শ্রীকৃষ্ণের কথা স্মরণ করানো ও তাঁর সেবা করতে সহায়তা করা।
■ শ্রীচৈতন্য মহাপ্রভুর নির্দেশ অনুসারে ভগবানের পবিত্র নাম কীর্তন করা ।
■ সকল জীবকে পরমেশ্বর ভগবান শ্রীকৃষ্ণের কথা স্মরণ করানো ও তাঁর সেবা করতে সহায়তা করা।