ড্রাগের মাধ্যমে ভগবদ্ উপলব্ধি সম্ভব নয়

0
134

কৃষ্ণকৃপাশ্রীমূর্তি শ্রীল অভয়চরণারবিন্দ ভক্তিবেদান্ত স্বামী প্রভুপাদ ও দক্ষিণ আফ্রিকার সাংবাদিক ফেইলের সঙ্গে কথোপকথনের অংশবিশেষ।
সাংবাদিক ফেইলঃ আপনি কি মনে করেন অতীন্দ্রিয় ধ্যান সাহায্য করতে শুরু করেছে…..
শ্রীল প্রভুপাদঃ তারা জানে না ধ্যান কি। তারা…..এটি কেবলমাত্র একটি প্রহসন। তথাকথিত স্বামী ও যোগীদের এটি আরেকটি প্রবঞ্চনার পন্থা যারা জানে না ধ্যান কি। আপনি কি জানেন ধ্যান কি? আপনি আমাকে প্রশ্ন করছেন কিন্তু আপনি কি জানেন ধ্যান কি?
ফেইলঃ কোনদিকে না নড়েচড়ে কেন্দ্রে স্থিত হয়ে কেবল মনকে স্থির করা।
শ্রীল প্রভুপাদঃ তো সেই কেন্দ্রটি কি?
ফেইলঃ ওঃ আমি জানি না।
শ্রীল প্রভুপাদঃ তাহলে? কেন আপনি আমাকে জিজ্ঞাসা করছেন। আপনি জানেন না। এইভাবে কেউই জানে না ধ্যান কি এবং তারা “ধ্যান’ নিয়ে বড় বেশী কথা বলে। এসব চলছে। তারা প্রবঞ্চক, তারা বলে ‘ধ্যান’, কিন্তু ধ্যানের বিষয়বস্তুটি কি তারা জানে না। কেবলই মিথ্যা প্রচার। আপনি দেখছেন?
ফেইলঃ এমনকি শুরুতেও মানুষ সঠিক চিন্তা করার সুযোগ পাচ্ছে না?
শ্রীল প্রভুপাদঃ না। ধ্যান অর্থ হচ্ছে ধ্যানাবস্থিত তদ্-গতেন মনস, মনকে ভগবৎচেতনায় বা ভগবানের চিন্তায় পূর্ণ করা। কিন্তু আপনি যদি ভগবানকে না জানেন, তাহলে ধ্যানটি কোথায়?
ফেইলঃ তাই এর একটি দীর্ঘ.……..
শ্রীল প্রভুপাদঃ না, এটি খুবই সুন্দর, কিন্তু এই মূহুর্তে ধ্যানের নামে কেবল প্রবঞ্চনা চলছে। তারা জানে না ধ্যানের বিষয়বস্তু কি। তাছাড়াও এই যুগে, মন এতটাই চঞ্চল যে, আপনি মনঃসংযোগ করতে পারেন না। আমি তথাকথিত ধ্যান দেখেছি। তারা নিয়মিত ঘুমাচ্ছে আর নাক ডাকছে। তারা জানে না। ওসবই চলেছে। তাই দুর্ভাগ্যবশতঃ ভগবৎচেতনা বা আত্ম-উপলব্ধির নামে বহু নির্দিষ্ট তত্ত্ব এই সকল তথাকথিত প্রবঞ্চকরা বৈদিক জ্ঞান এবং নির্ভরযোগ্য গ্রন্থের উল্লেখ ছাড়াই উপস্থাপন করছে। এটি হচ্ছে আরেক ধরনের শোষণ।
ফেইলঃ আউপেনস্কি এবং গ্যরদিয়েফদের মতো উঠতি অন্যান্য দল সম্বন্ধে আপনার মত কি, যারা অতীতেও আপনার মতো একই বার্তা পাশ্চাত্যে নিয়ে এসেছে?
শ্রীল প্রভুপাদঃ আমাদের যেটি পরীক্ষা করে দেখতে হয় সেটি হল সেটির মানটি কি? অন্যথায় তারা অনেক কিছু বলতে পারে, কিন্তু তারা যদি না জানে মানটি কি….ঠিক যেমন চিকিৎসা বিজ্ঞান বা যে কোন বিজ্ঞান, সেরকম। যেহেতু তা অন্য কেউ বলছে সেহেতু সেটি আলাদা হতে পারে না। সেরকম নয়। সেটি বিজ্ঞান নয়। ‘দুয়ে দুয়ে চার হয়’-এটি একটি বিজ্ঞান এবং এটি সর্বত্র সত্য। এমন নয় যেহেতু এটি অন্য কারোর দ্বারা কথিত হয়েছে তাই সেটি দুয়ে দুয়ে পাঁচ বা তিন হবে। না। সেটি……
ফেইলঃ না। আপনি কি মনে করেন অন্য কোন মানুষের মধ্যেও সত্য রয়েছে, রয়েছে কি?
শ্রীল প্রভুপাদঃ সেটা বলা খুব শক্ত।
ফেইলঃ হ্যাঁ। যদি না আপনি বিশদে অধ্যয়ন করেন।
শ্রীল প্রভুপাদঃ হ্যাঁ, বিশদে অধ্যয়ন করা ছাড়া আমার পক্ষে এটা বলা খুব কষ্টকর। কেননা অনেক প্রবঞ্চক রয়েছে, অনেক।
ফেইলঃ তারা কেবল অর্থের জন্য তা করছে।
শ্রীল প্রভুপাদঃ সেটিই হবে। সেরকমই চলছে। তাদের কোন নির্দিষ্ট মানদণ্ড নেই। আমরা একটা নির্দিষ্ট মান উপস্থাপন করছি। সেটি হল ভগবদ্গীতা যথাযথ। যথাযথ, কোন অপব্যাখ্যা ব্যতীত, আমরা তা উপস্থাপন করছি। সেটিই মান।
ফেইলঃ হ্যাঁ। আপনি যদি জিনিসটি সাজাতে শুরু করেন তা পরিবর্তিত হবে। এখন আপনাদের আন্দোলনের পরিধি কেমন? এটি কি বর্ধিষ্ণু আন্দোলন, কৃষ্ণভাবনামৃত?
শ্রীল প্রভুপাদঃ হ্যাঁ, এটি অত্যন্ত বর্ধনশীল। আপনি অবাক হবেন যে আমরা এই সমস্ত গ্রন্থ বিক্রি করছি.. …… আমাদের প্রায় পঞ্চাশটি এই রকম গ্রন্থ রয়েছে আর প্রতিটি গ্রন্থাগার, কলেজ অধ্যাপকগণ, বিশ্ববিদ্যালয় তারা সকলেই এর প্রশংসা করেছে কেননা এরকম সাহিত্যের অস্তিত্ব আর নেই। পৃথিবীতে এটি একটি নতুন অবদান।
ফেইলঃ এখন একজন আমেরিকান, আলপার্ট, সেও ভগবৎ চেতনার স্তরে এসেছে। কিন্তু সে অত্যন্ত, খুবই ড্রাগ আসক্ত। ড্রাগ গ্রহণ করা সেটি ঠিক নয়।
শ্রীল প্রভুপাদঃ আলফ্রেড? বলুন….
হরিকেশঃ সে হচ্ছে টিমোথি লিয়েরীর একজন সঙ্গী।
শ্রীল প্রভুপাদঃ টিমোথি
হরিকেশঃ হ্যাঁ, লিয়েরী তার সঙ্গী ছিল এবং তারপর এই আরেকজন মানুষ, সে ধ্যানকে গ্রহণ করেছে এবং……… হওয়ার জন্য শুরু করেছে।
শ্রীল প্রভুপাদঃ এটিও মেকি। এটিও মেকি।
ফেইলঃ আমি ধারণাটি পছন্দ করছি না কিন্তু গ্রন্থটি অত্যন্ত হৃদয়গ্রাহী। কিন্তু আমি মনে করি সেটি ঠিক নয়। আপনার ড্রাগের দিকে ঝোঁকা উচিত নয়।
শ্রীল প্রভুপাদঃ সেটি…… যে কোন কিছু….. যদি ড্রাগ ভগবৎ উপলব্ধির ক্ষেত্রে সাহায্য করতে পারত তাহলে ড্রাগই ভাল, আমি বলতে চাইছি, ভগবানের চেয়েও বেশি শক্তিশালী।
ফেইলঃ যা ঠিক নয়……..
শ্রীল প্রভুপাদঃ আমরা সেটি কিভাবে গ্রহণ করতে পারি? ড্রাগ হচ্ছে জাগতিক বস্তু, রাসায়নিক উপাদান, সেটি কি করে ভগবদ্ উপলব্ধিতে কাউকে সাহায্য করতে পারে? সেটি সম্ভব নয়। সেটি এক ধরনের নেশাগ্রস্ততা এবং চিত্তবিভ্রম, সেটি ভগবদ্-উপলব্ধি নয়।


 

চৈতন্য সন্দেশ মার্চ – ২০০৯ প্রকাশিত

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here