ভগবান শ্রীকৃষ্ণের ছয়টি প্রতিজ্ঞা

প্রকাশ: ১৭ নভেম্বর ২০১৯ | ১২:১৬ অপরাহ্ণ আপডেট: ১৭ নভেম্বর ২০১৯ | ১২:২১ অপরাহ্ণ

এই পোস্টটি 3028 বার দেখা হয়েছে

ভগবান শ্রীকৃষ্ণের ছয়টি প্রতিজ্ঞা

গীতায় ভগবান শ্রীকৃষ্ণের ছয়টি প্রতিজ্ঞা

প্রথম প্রতিজ্ঞা

শ্রীকৃষ্ণ প্রতিজ্ঞা করেছেন “অতএব, হে অর্জুন, সর্বদা আমাকে স্মরণ করে তোমার স্বভাব বিহিত যুদ্ধ কর। তাহলে আমাতে তোমার মন ও বুদ্ধি অর্পিত হবে এবং নিঃসন্দেহে তুমি আমাকেই লাভ করবে।”
(ভগবদগীতা ৮/৭)।

দ্বিতীয় প্রতিজ্ঞা

শ্রীকৃষ্ণ প্রতিজ্ঞা করেছেন “তোমার মনকে আমার ভাবনায় নিযুক্ত করো, আমাকে প্রণাম করো এবং আমার পূজা কর। সম্পূর্ণরূপে আমাকে আশ্রয় করো তুমি অবশ্যই আমাকে লাভ করবে।”
(ভগবদগীতা ৯/৩৪)।

তৃতীয় প্রতিজ্ঞা

 শ্রীকৃষ্ণ প্রতিজ্ঞা করেছেন, “যারা নিত্য ভক্তিযোগ দ্বারা প্রীতিপূর্বক আমরা ভজনা করেন, আমি তাদের শুদ্ধজ্ঞানজনিত বুদ্ধিযোগ দান করি। যার দ্বারা তারা আমার কাছে ফিরে আসতে পারে।’
(ভগবদগীতা ১০/১০)।

চতুর্থ প্রতিজ্ঞা

 শ্রীকৃষ্ণ প্রতিজ্ঞা করেছেন, “হে প্রিয় অর্জুন, যিনি আমার সেবা করেন, আমার প্রতি নিঃস্বার্থ পরায়ণ, আমার ভক্ত, জড়বিষয়ে সম্পূর্ণ আসক্তি রহিত এবং সমস্ত প্রাণীর প্রতি শত্রুভাব রহিত, তিনি অবশ্যই আমার কাছে ফিরে আসেন।
(ভগবদগীতা ১১/৫৫)।

পঞ্চম প্রতিজ্ঞা

 শ্রীকৃষ্ণ প্রতিজ্ঞা করেছেন, “অতএব আমাতে তুমি মন সমাহিত করো, আমাতে বুদ্ধি নিবিষ্ট করো। তার ফলে নিশ্চয়ই আমাকে প্রাপ্ত হবে, সে সম্বন্ধে কোন সন্দেহ নেই।
(ভগবদগীতা ১২/৮)।

ষষ্ঠ প্রতিজ্ঞা

 শ্রীকৃষ্ণ প্রতিজ্ঞা করেছেন, “তুমি আমাতে মন চিত্তস্থির করো এবং আমার ভক্ত হও। আমার পূজা করো এবং আমাকে নমষ্কার করো। তুমি আমার অত্যন্ত প্রিয়। এইজন্যই আমি সত্যপ্রতিজ্ঞা করছি যে, এভাবে তুমি আমাকে প্রাপ্ত হবে ।”
(ভগবদ্গীতা ১৮/৬৫)।

হরে কৃষ্ণ মহামন্ত্রের মহিমা অনন্য এবং খুবই শক্তিশালী, কেননা পরমেশ্বর ভগবান শ্রী কৃষ্ণ এবং হরিনাম এক ও অভিন্ন, কোন পার্থক্য নেই….
পরম আদরে এবং অনন্য ভক্তি সহকারে জপ করার ফলেই আমরা চিন্ময় আনন্দ অনুভব করতে পারব.

হরে কৃষ্ণ হরে কৃষ্ণ কৃষ্ণ কৃষ্ণ হরে হরে হরে রাম হরে রাম রাম রাম হরে হরে।

হরে কৃষ্ণ মহামন্ত্র জপ করুন এবং সুখী হউন।

সম্পর্কিত পোস্ট

‘ চৈতন্য সন্দেশ’ হল ইস্‌কন বাংলাদেশের প্রথম ও সর্বাধিক পঠিত সংবাদপত্র। csbtg.org ‘ মাসিক চৈতন্য সন্দেশ’ এর ওয়েবসাইট।
আমাদের উদ্দেশ্য
■ সকল মানুষকে মোহ থেকে বাস্তবতা, জড় থেকে চিন্ময়তা, অনিত্য থেকে নিত্যতার পার্থক্য নির্ণয়ে সহায়তা করা।
■ জড়বাদের দোষগুলি উন্মুক্ত করা।
■ বৈদিক পদ্ধতিতে পারমার্থিক পথ নির্দেশ করা
■ বৈদিক সংস্কৃতির সংরক্ষণ ও প্রচার। শ্রীচৈতন্য মহাপ্রভুর নির্দেশ অনুসারে ভগবানের পবিত্র নাম কীর্তন করা ।
■ সকল জীবকে পরমেশ্বর ভগবান শ্রীকৃষ্ণের কথা স্মরণ করানো ও তাঁর সেবা করতে সহায়তা করা।
■ শ্রীচৈতন্য মহাপ্রভুর নির্দেশ অনুসারে ভগবানের পবিত্র নাম কীর্তন করা ।
■ সকল জীবকে পরমেশ্বর ভগবান শ্রীকৃষ্ণের কথা স্মরণ করানো ও তাঁর সেবা করতে সহায়তা করা।