ভয় যখন সমস্যা (গত সংখ্যার পর)

প্রকাশ: ১ অক্টোবর ২০২৩ | ৯:০০ পূর্বাহ্ণ আপডেট: ১ অক্টোবর ২০২৩ | ৯:০০ পূর্বাহ্ণ

এই পোস্টটি 122 বার দেখা হয়েছে

ভয় যখন সমস্যা (গত সংখ্যার পর)

গত সংখ্যায় আমাদের জীবনের অনেক ভয় সম্পর্কে বিস্তারিত বিশ্লেষণ করা হয়েছিল। ঐ সমস্ত ভয় ছাড়াও আমাদের রয়েছে সম্মান হারানোর ভয়, মৃত্যুর ভয়, কোন কিছু হারানোর ভয়, আমার বিপক্ষীয় কেউ আমাকে টপকে প্রতিষ্ঠা লাভের ভয়, ভবিষ্যতে কি হবে এ প্রকার ভয় ছাড়াও রয়েছে আরো বিবিধ প্রকারের ভয় । যেমন- আলেকজান্ডার দ্য গ্রেট একসময় সমস্ত পৃথিবী জয় করে অবশেষে যখন ভারতবর্ষ জয় করার জন্য এসেছিল তখন তাঁর সে সম্ভাবনা ভেস্তে যেতে থাকে । কেননা শুধুমাত্র মশার আক্রমনেই তাঁর সৈনিকরা ধীরে ধীরে ম্যালেরিয়ায় আক্রান্ত হয়ে মারা যাচ্ছিল ফলশ্রুতিতে তাঁর শক্তিও আর সেজন্য তিনি ডাক্তারকে গুণে গুণে বিশ হাজার ডলার দিয়েছিলেন। পরবর্তীতে এর কিছুদিন পরেই তার মৃত্যু হলে তাকে একটি উচ্চ ক্ষমতা সম্পন্ন ফ্রিজে রাখা হয় এবং তার মৃতদেহে প্রাণ ফিরিয়ে আনার গবেষণা শুরু হয়। কিন্তু তার আত্মীয়রা ভাবতে থাকে যদি তিনি আবার ফিরে আসেন তবে তার বিশাল সম্পত্তির ভাগীদার হওয়া থেকে বঞ্চিত হবেন। তাই তারা উল্টো সে বিজ্ঞানীকে শুধুমাত্র তারা শক্তিশালী ফ্রিজের সুইচ অফ করার জন্য বিশ হাজার ডলার দেন। এভাবে শুধুমাত্র ফ্রিজের সুইচ অফ এবং অন করার মাধ্যমে সেই বিজ্ঞানী হাতিয়ে নিয়েছিল ৪০,০০০ ডলার। এক্ষেত্রে ডিজনিল্যান্ডের প্রতিষ্ঠাতা মৃত্যু এবং মৃত্যু পরবর্তী জীবন সম্পর্কে এতটাই ভয়ে ভীত ছিল যে, শেষ পর্যন্ত এরকম হাস্যকর ঘটনা বিশ্ববাসীকে উপহার দিল । এভাবে প্রত্যেকেই মৃত্যুভয়েও ভীত হয়। এখন বৈদিক শাস্ত্রে এর প্রকৃত সমাধান কি দেওয়া আছে সে বিষয়ে পর্যবেক্ষণ করা যাক। বৈদিক শাস্ত্রে সর্বপ্রথম যে সমাধানটি দেওয়া হয়েছে তা হল- হরে কৃষ্ণ মহামন্ত্র জপ কীর্তন ।

শ্রীমদ্ভাগবতের বিবিধ শ্লোকে এ বিষয়ে বলা হয়েছে যে, যদি কেউ এই ‘হরেকৃষ্ণ মহামন্ত্র জপ কীর্তন করে তবে স্বয়ং ভয়ও তার কাছে আসতে ভীত হয় । দ্বিতীয় সমাধানটি হল, শ্রীমদ্ভাগবত শ্রবণ। শ্রীমদ্ভাবতে ভগবানের অপূর্ব লীলাকাহিনীসমূহ কোন শুদ্ধ ভক্তের কাছ থেকে শ্রবণের ফলে অচিরেই হৃদয় থেকে সমস্ত ভয় বিদূরিত হয় এ বিষয়েও বৈদিক শাস্ত্রে প্রতিশ্রুতি দেওয়া হয়েছে। অর্থাৎ কেউ যদি তার জীবনের যে কোন ভয় থেকে মুক্ত হওয়ার প্রয়াস করে তবে তার শ্রীমদ্ভাগবত শ্রবণ একান্তই জরুরী। তৃতীয় সমাধান হল, ভগবানের ভক্তদের সেবা। কেউ যদি অকৃত্রিম শ্রদ্ধা ও প্রীতি অদৃশ্য সহকারে ভগবানের ভক্তদের সেবা করে তবে তার যে কোন ভয় দূরীভূত হয়। এ বিষয়ে বলা হয়েছে ভগবানের ভক্তদের সেবা করার ফলে ভগবান তুষ্ট হয়। যার ফলশ্রুতিতে কোন রকম ভয় সে সেবাকারীকে আর ভীতসন্ত্রস্থ করতে পারে না। আর সেজন্যই বৈদিক শাস্ত্রে সকলকেই ভক্তসঙ্গের ব্যাপারে গুরুত্বারোপ করা হয়েছে। তাই মূর্তিমান ভয়ংকর ভয় থেকে মুক্তি পেতে যে কারোরই উপরোক্ত সমাধানের বিকল্প নেই। কেননা আমাদের জীবনের প্রতিটি পদক্ষেপে ভয় ওৎ পেতে রয়েছে। যে কোন মুহূর্তে আমাদের সুস্থ সুখের জীবন তছনছ হতে পারে যে কোন প্রকার ভয়ের আক্রমণে। তাই অনতিবিলম্বেই উপরোক্ত সমাধানগুলো আপনার জীবনে প্রয়োগ করা একান্তই জরুরী। হরেকৃষ্ণ।


চৈতন্য সন্দেশ অ্যাপ ডাউনলোড করুন :https://play.google.com/store/apps/details?id=com.differentcoder.csbtg


Hare Krishna Thanks For Reading
সম্পর্কিত পোস্ট

‘ চৈতন্য সন্দেশ’ হল ইস্‌কন বাংলাদেশের প্রথম ও সর্বাধিক পঠিত সংবাদপত্র। csbtg.org ‘ মাসিক চৈতন্য সন্দেশ’ এর ওয়েবসাইট।
আমাদের উদ্দেশ্য
■ সকল মানুষকে মোহ থেকে বাস্তবতা, জড় থেকে চিন্ময়তা, অনিত্য থেকে নিত্যতার পার্থক্য নির্ণয়ে সহায়তা করা।
■ জড়বাদের দোষগুলি উন্মুক্ত করা।
■ বৈদিক পদ্ধতিতে পারমার্থিক পথ নির্দেশ করা
■ বৈদিক সংস্কৃতির সংরক্ষণ ও প্রচার। শ্রীচৈতন্য মহাপ্রভুর নির্দেশ অনুসারে ভগবানের পবিত্র নাম কীর্তন করা ।
■ সকল জীবকে পরমেশ্বর ভগবান শ্রীকৃষ্ণের কথা স্মরণ করানো ও তাঁর সেবা করতে সহায়তা করা।
■ শ্রীচৈতন্য মহাপ্রভুর নির্দেশ অনুসারে ভগবানের পবিত্র নাম কীর্তন করা ।
■ সকল জীবকে পরমেশ্বর ভগবান শ্রীকৃষ্ণের কথা স্মরণ করানো ও তাঁর সেবা করতে সহায়তা করা।