৯,৩০,০০,০০০ মাইল

প্রকাশ: ২৭ ডিসেম্বর ২০২১ | ৭:৪১ পূর্বাহ্ণ আপডেট: ২৭ ডিসেম্বর ২০২১ | ৭:৪১ পূর্বাহ্ণ

এই পোস্টটি 566 বার দেখা হয়েছে

৯,৩০,০০,০০০ মাইল

সূর্যের কিরণ যতদূর পর্যন্ত বিস্তীর্ণ হয়, ততদূর পর্যন্ত ভূমণ্ডলের বিস্তার। আধুনিক বৈজ্ঞানিকদের মতে সূর্যের কিরণ ৯,৩০,০০,০০০ মাইল দূর থেকে পৃথিবীতে আসছে। আমরা যদি আধুনিক বৈজ্ঞানিকদের তথ্য অনুসারে গণনা করি, তাহলে ভূমণ্ডলের ব্যাসার্ধ হচ্ছে ৯,৩০,০০,০০০ মাইল। গায়ত্রী মন্ত্রে আমরা জপ করি “ওঁ ভূর্ভুবঃ স্বঃ“। ভূঃ শব্দটি ভূমণ্ডলকে ইঙ্গিত করে। “তৎ সবিতুর্বরেণ্যম্“-সূর্যকিরণ সমগ্র ভূমণ্ডল জুড়ে বিস্তৃত। তাই সূর্যদেব বরেণ্য বা পূজনীয়। আধুনিক জ্যোতির্বিদদের মতে নক্ষত্রগুলি হচ্ছে এক একটি সূর্য, কিন্তু তাদের এই ধারণাটি ভুল। ভগবদ্গীতা (১০/২১) থেকে আমরা জানতে পারি যে, নক্ষত্রগুলি হচ্ছে চন্দ্রের মতো (নক্ষত্রাণাম্ অহং শশী)। নক্ষত্রগুলি চন্দ্রের মতো সূর্যকিরণ প্রতিফলিত করে।

সূত্র: (৫/১৬/১ তাৎপর্য)

সম্পর্কিত পোস্ট

‘ চৈতন্য সন্দেশ’ হল ইস্‌কন বাংলাদেশের প্রথম ও সর্বাধিক পঠিত সংবাদপত্র। csbtg.org ‘ মাসিক চৈতন্য সন্দেশ’ এর ওয়েবসাইট।
আমাদের উদ্দেশ্য
■ সকল মানুষকে মোহ থেকে বাস্তবতা, জড় থেকে চিন্ময়তা, অনিত্য থেকে নিত্যতার পার্থক্য নির্ণয়ে সহায়তা করা।
■ জড়বাদের দোষগুলি উন্মুক্ত করা।
■ বৈদিক পদ্ধতিতে পারমার্থিক পথ নির্দেশ করা
■ বৈদিক সংস্কৃতির সংরক্ষণ ও প্রচার। শ্রীচৈতন্য মহাপ্রভুর নির্দেশ অনুসারে ভগবানের পবিত্র নাম কীর্তন করা ।
■ সকল জীবকে পরমেশ্বর ভগবান শ্রীকৃষ্ণের কথা স্মরণ করানো ও তাঁর সেবা করতে সহায়তা করা।
■ শ্রীচৈতন্য মহাপ্রভুর নির্দেশ অনুসারে ভগবানের পবিত্র নাম কীর্তন করা ।
■ সকল জীবকে পরমেশ্বর ভগবান শ্রীকৃষ্ণের কথা স্মরণ করানো ও তাঁর সেবা করতে সহায়তা করা।