হে রাম!

প্রকাশ: ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২১ | ৫:১৩ পূর্বাহ্ণ আপডেট: ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২১ | ৫:১৩ পূর্বাহ্ণ

এই পোস্টটি 214 বার দেখা হয়েছে

হে রাম!

গান্ধিজীকে যদিও প্রভুপাদ তার আসন্ন মৃত্যুর সতর্কতা জানিয়ে একটি পত্র দিয়েছিলেন । কিন্তু গান্ধিজী সেটি পড়েননি। কিন্তু শ্রীল প্রভুপাদের চিঠি প্রেরণের ৬ মাস পরেই তার মৃত্যু হয়েছিল। একদিন আততায়ীর ছোড়া পর পর তিনটি গুলি এসে তার বুকে বিদ্ধ করে। তখন শুধুমাত্র ‘হে রাম’ উচ্চারণ করার মাধ্যমে মৃত্যুর দিকে ঢলে পড়েন। এর মাধ্যমে মহাত্মা গান্ধীজীর ধার্মিক চেতনার একটি নমুনা ফুটে উঠে।


চৈতন্য সন্দেশ আগস্ট-২০০৯ প্রকাশিত

সম্পর্কিত পোস্ট

‘ চৈতন্য সন্দেশ’ হল ইস্‌কন বাংলাদেশের প্রথম ও সর্বাধিক পঠিত সংবাদপত্র। csbtg.org ‘ মাসিক চৈতন্য সন্দেশ’ এর ওয়েবসাইট।
আমাদের উদ্দেশ্য
■ সকল মানুষকে মোহ থেকে বাস্তবতা, জড় থেকে চিন্ময়তা, অনিত্য থেকে নিত্যতার পার্থক্য নির্ণয়ে সহায়তা করা।
■ জড়বাদের দোষগুলি উন্মুক্ত করা।
■ বৈদিক পদ্ধতিতে পারমার্থিক পথ নির্দেশ করা
■ বৈদিক সংস্কৃতির সংরক্ষণ ও প্রচার। শ্রীচৈতন্য মহাপ্রভুর নির্দেশ অনুসারে ভগবানের পবিত্র নাম কীর্তন করা ।
■ সকল জীবকে পরমেশ্বর ভগবান শ্রীকৃষ্ণের কথা স্মরণ করানো ও তাঁর সেবা করতে সহায়তা করা।
■ শ্রীচৈতন্য মহাপ্রভুর নির্দেশ অনুসারে ভগবানের পবিত্র নাম কীর্তন করা ।
■ সকল জীবকে পরমেশ্বর ভগবান শ্রীকৃষ্ণের কথা স্মরণ করানো ও তাঁর সেবা করতে সহায়তা করা।