শ্রীমতি রাধারাণীর চরণকমলের শুভচিহ্নসমূহ

প্রকাশ: ৪ সেপ্টেম্বর ২০২২ | ৭:৫৮ পূর্বাহ্ণ আপডেট: ৪ সেপ্টেম্বর ২০২২ | ৭:৫৮ পূর্বাহ্ণ

এই পোস্টটি 107 বার দেখা হয়েছে

শ্রীমতি রাধারাণীর চরণকমলের শুভচিহ্নসমূহ

শ্রীমতি রাধারাণীর বাম চরণের বৃদ্ধ পদাঙ্গুঠের ঠিক নীচে যবদানা চিহ্ন, ঐ চিহ্নের নীচে রয়েছে একটি চক্র, চক্রের নীচে রয়েছে ছত্র এবং ছত্রের নীচে বাজুবন্ধ (বেসলেট)। চরণতলের মধ্যভাগ হতে একটি উলম্ব বক্ররেখা চরণের দ্বিতীয় ও মধ্যমাঙ্গুলের মাঝখানে গিয়ে শেষ হয়েছে, মধ্যমাঙ্গুলের নীচে রয়েছে কমল, কমল-চিহ্নের নীচে রয়েছে একটি পতাকা বা ধ্বজ, পতাকার নীচে একটি পুষ্প ও পল্লব-একত্রে, কনিষ্ঠাঙ্গুলির নীচে রয়েছে অঙ্কুশ, গোড়ালির  উপরে রয়েছে অর্দ্ধ-চন্দ্র তার উপরে রয়েছে বল্লী (লতা), এইভাবে তাঁর বাম চরণে এগারোটি শুভ চিহ্ন নিত্যকাল বিদ্যমান। শ্রীমতি রাধারাণীর ডান চরণের বৃদ্ধাঙ্গুষ্ঠের নীচে রয়েছে শঙ্খ, দক্ষিণ চরণের কনিষ্ঠ আঙুলের নীচে রয়েছে একটি যজ্ঞবেদী, তাঁর নীচে একটি কর্ণকুণ্ডল, কর্ণকুণ্ডলের নীচে একটি গদা। দ্বিতীয়, তৃতীয় ও চতুর্থ আঙুলের ঠিক নীচে রয়েছে একটি পর্বত চিহ্ন, তাঁর নীচে একটি রথ, রথের পাশে বর্শা এবং গোড়ালির উপর একটি মাছ। এইভাবে শ্রীমতী রাধারাণীর চরণকমলে সর্ব মোট উনিশটি বিশেষ শুভচিহ্ন বিদ্যমান।


মাসিক চৈতন্য সন্দেশ সেপ্টেম্বর ২০২২ হতে প্রকাশিত
সম্পর্কিত পোস্ট

‘ চৈতন্য সন্দেশ’ হল ইস্‌কন বাংলাদেশের প্রথম ও সর্বাধিক পঠিত সংবাদপত্র। csbtg.org ‘ মাসিক চৈতন্য সন্দেশ’ এর ওয়েবসাইট।
আমাদের উদ্দেশ্য
■ সকল মানুষকে মোহ থেকে বাস্তবতা, জড় থেকে চিন্ময়তা, অনিত্য থেকে নিত্যতার পার্থক্য নির্ণয়ে সহায়তা করা।
■ জড়বাদের দোষগুলি উন্মুক্ত করা।
■ বৈদিক পদ্ধতিতে পারমার্থিক পথ নির্দেশ করা
■ বৈদিক সংস্কৃতির সংরক্ষণ ও প্রচার। শ্রীচৈতন্য মহাপ্রভুর নির্দেশ অনুসারে ভগবানের পবিত্র নাম কীর্তন করা ।
■ সকল জীবকে পরমেশ্বর ভগবান শ্রীকৃষ্ণের কথা স্মরণ করানো ও তাঁর সেবা করতে সহায়তা করা।
■ শ্রীচৈতন্য মহাপ্রভুর নির্দেশ অনুসারে ভগবানের পবিত্র নাম কীর্তন করা ।
■ সকল জীবকে পরমেশ্বর ভগবান শ্রীকৃষ্ণের কথা স্মরণ করানো ও তাঁর সেবা করতে সহায়তা করা।