বাংলাদেশের পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়সমূহে ‘সময় ব্যবস্থাপনা ওয়ার্কশপ’

0
99

সময় এমনি এক সম্পদ যা সবাই চায় কিন্তু এই সম্পদটিই মানুষ সবচেয়ে বেশী অপচয় করে। উন্নত বিশ্বে মানুষ সময়কে অর্থের মতই মূল্য দেয় কিন্তু এটি অর্থের চেয়ে বেশী মূল্যবান। অর্থ হারিয়ে গেলে আবার তা অর্জন করা সম্ভব। কিন্তু সময় এমনি এক সম্পদ যা একবার গত হলে কোটি স্বর্ণ মুদ্রার বিনিময়েও ফেরত পাওয়া সম্ভব নয়। জীবনে সাফল্য লাভের মূলে রয়েছে এই মহামূল্যবান সময়ের যথার্থ উপযোগ। বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রথম বর্ষের সনাতনী শিক্ষার্থীদের সময় ব্যবহারের অত্যাধুনিক এবং বৈদিক অব্যার্থ কৌশলসমূহে প্রশিক্ষিত করার জন্য Vedic Oasis for Inspiration, Culture & Education (VOICE) এর উদ্যোগে বাংলাদেশের পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়সমূহে ‘সময় ব্যবস্থাপনা ওয়ার্কশপ’ অনুষ্ঠিত হয়। বাংলাদেশ ব্যাংকের সহকারী পরিচালক শ্রীমান রাঘব কীর্তন দাস কর্তৃক সময় ব্যবস্থাপনার মূল প্রবন্ধ উপস্থাপনের পাশাপাশি বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক ও গুণীজনদের জ্ঞানগর্ভ উপদেশ, মহামন্ত্র মেডিটেশন, সুস্বাদু কৃষ্ণপ্রসাদ অনুষ্ঠানকে আরো প্রাণবন্ত করেছে। এই ওয়ার্কশপটি শিক্ষার্থীদের দক্ষতা বৃদ্ধির মাধ্যমে লক্ষ্য অর্জন এবং চরিত্র গঠনে ব্যাপকভাবে ভূমিকা রাখছে।
রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে ১২ মার্চ, ৩২০ জন প্রথম বর্ষের শিক্ষার্থীদের নিয়ে শ্রীচেতন্য শিক্ষা ও সংস্কৃতি সংঘ, রাবি কর্তৃক আয়োজিত নবীন বরণ ও সময় ব্যবস্থাপনা ওয়ার্কশপে আশীর্বাদক হিসেবে ছিলেন শ্রীমৎ ভক্তিপ্রিয়ম গদাধর গোস্বামী মহারাজ, সিনিয়র সহ-সভাপতি, ইস্‌কন, বাংলাদেশ, জগৎগুরু গৌরাঙ্গ দাস, যুগ্ম সম্পাদক, ইস্‌কন, বাংলাদেশ এবং পার্থ সারথি কৃষ্ণ দাস, পরিচালক, ইস্‌কন, খেতুরী ধাম।
শ্রীল প্রভুপাদের ১২৫তম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে “সনাতন ধর্ম বিশ্বায়নের অন্যতম রূপকার- শ্রীল প্রভুপাদ” গ্রন্থটি শিক্ষার্থীদের উপহার প্রদান করা হয়। ড. লিপিকা ঘোষ, অধ্যাপক, উদ্ভিদবিদ্যা বিভাগ, রাবি এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন অধ্যাপক ড. কমল কৃষ্ণ বিশ্বাস, সভাপতি, শারীরিক শিক্ষা ও ক্রিড়া বিজ্ঞান বিভাগ, অধ্যাপক ড. সোমলাল দাস, অধ্যাপক ড. বিশ্বনাথ শিকদার, সভাপতি, অনুজীব বিজ্ঞান বিভাগ, অধ্যাপক ড. জুইলি বিশ্বাসসহ প্রমুখ।
ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় জগন্নাথ হলের উপাধ্যক্ষ অধ্যাপক ড. মিহির লাল সাহার সভাপতিত্বে, শ্রীচৈতন্য শিক্ষা ও সংস্কৃতি সংঘের আয়োজনে, শিক্ষার্থীদের নবীন বরণ অনুষ্ঠান -২০২২ এ “আত্ম-ব্যবস্থাপনার কৌশল” শীর্ষক সেমিনার প্রদান করেন শ্রীমান জগৎগুরু গৌরাঙ্গ দাস ব্রহ্মচারী। ১৯ মার্চ অনুষ্ঠিত এই সেমিনারে ১২০ জন ছাত্র অংশগ্রহণ করেন। ছাত্রদের শ্রীকৃষ্ণের সন্ধানে গ্রন্থটি উপহারস্বরূপ প্রদান করা হয়।
চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে ১ম বর্ষের ১০৫ জন ছাত্রদের নিয়ে ২১ মার্চ এবং ১২৭ জন ছাত্রীদের নিয়ে ৭ এপ্রিল নবীন বরণ এবং ‘সময় ব্যবস্থাপনা ওয়ার্কশপ’ অনুষ্ঠিত হয়। চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতির সাধারণ সম্পাদক ড. সজীব ঘোষ, রসায়ন বিভাগের অধ্যাপক ড. তাপসী ঘোষ রায়, সহকারী প্রক্টর ড. রামেন্দু পারিয়ালসহ অনেক শিক্ষক এতে উপস্থিত ছিলেন। নবীন শিক্ষার্থীদের একটি করে ’ভগবদ্গীতা যথাযথ’ উপহার দেওয়া হয়।
দিনাজপুরের হাজী মোহাম্মদ দানেশ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে ২২ মার্চ ২২০ জন প্রথম বর্ষের শিক্ষার্থীদের নিয়ে শ্রীচেতন্য শিক্ষা ও সংস্কৃতি সংঘ, হাবিপ্রবি এর আয়োজনে নবীন বরণ, ‘ভগবদ্গীতা যথাযথ’ দান এবং “তারুণ্যে ভগবদ্গীতা অধ্যয়নের গুরুত্ব” শীর্ষক সেমিনার অনুষ্ঠিত হয়। এতে আশীর্বাদক ছিলেন শ্রীমৎ ভক্তিবিনয় স্বামী মহারাজ, সহ-সভাপতি, ইস্‌কন, বাংলাদেশ। প্রফেসর ডঃ বিধান চন্দ্র হালদার, কোষাধ্যক্ষ, হাবিপ্রবি এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে আরো ছিলেন প্রফেসর ড. শ্রীপতি শিকদার, ড. বিকাশ চন্দ্র সরকার, সভাপতি, কৃষি রসায়ন বিভাগ।
২৫ মার্চ, শুক্রবার চট্টগ্রাম ভেটিরিনারি এবং এ্যানিমাল সাইন্সেস ইউনিভার্সিটির প্রথম বর্ষের ৬৭জন শিক্ষার্থীদের নিয়ে নবীন বরণ, সময় ব্যবস্থাপনা ওয়ার্কশপ এবং ভগবদ্গীতা যথাযথ দান অনুষ্ঠিত হয়। অধ্যাপক ড. আশুতোষ দাস, বিভাগীয় প্রধান, জেনেটিক এবং প্রাণী প্রজনন বিভাগ এর সভাপতিত্বে উক্ত অনুষ্ঠানে আরো ছিলেন শুভঙ্কর সাহা, ইন্দ্রজিৎ সাহা, অভিজিৎ দত্ত, মুকুন্দ ভক্তি দাস।
চট্টগ্রামের বিভিন্ন কলেজ এবং বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের নিয়ে ১ এপ্রিল বঙ্গবন্ধু মিলনায়তন, প্রেস ক্লাবে ‘সময় ব্যবস্থাপনা ওয়ার্কশপ’ অনুষ্ঠিত হয়। এতে ৩১৫ জন ছাত্র অংশগ্রহণ করে। শিক্ষার্থীদের বিশেষভাবে অনুপ্রেরণা প্রদান করেন ড. রামেন্দু পরিয়াল, অভিজিৎ দত্ত।
বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়, রংপুর এর ১ম বর্ষের ১৩৬জন শিক্ষার্থীদের নিয়ে শ্রীচেতন্য শিক্ষা ও সংস্কৃতি সংঘ এর উদ্যোগে নবীন বরণ এবং ‘সময় ব্যবস্থাপনা ওয়ার্কশপ’ অনুষ্ঠিত হয় ২ এপ্রিল। শ্রীমৎ ভক্তিপ্রিয়ম গদাধর গোস্বামী মহারাজ এতে আশীর্বাদক ছিলেন। শিক্ষার্থীদের মূল্যবান দিকনির্দেশনা প্রদান করেন রামপ্রসাদ বর্মন, সুকান্ত দাস, অতুল চন্দ্র সিংহ প্রমুখ।
১ম বর্ষের ১১৫ জন শিক্ষার্থীদের নিয়ে ঢাকার জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ে গত ৮ এপ্রিল শ্রীচেতন্য শিক্ষা ও সংস্কৃতি সংঘ এর আয়োজনে অনুষ্ঠিত হয় নবীন বরণ ও ‘সময় ব্যবস্থাপনা ওয়ার্কশপ’। গৌতম কুমার সাহা, এবং বিজন বাড়ৈ সহ সংঘের প্রাক্তন সভাপতিগণ এতে শিক্ষার্থীদের মূল্যবান দিকনির্দেশনা প্রদান করেন।
ওয়ার্কশপে অংশগ্রহণকারী উচ্ছসিত শিক্ষার্থীদের অনেকেই তাদের মনের ভাব এবং কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করে। তাদের ভাষায় এই অনুষ্ঠান তাদের ব্যক্তিগত সাফল্য, চরিত্র গঠন এবং আত্মোপলব্ধির পথে এক ধাপ এগিয়ে নিয়ে যাবে। তারা আরো আশা করেন, প্রত্যেক বিশ্ববিদ্যালয় এবং কলেজে এই ধরনের অনুষ্ঠানের আয়োজন করা উচিত যাতে বাংলাদেশের প্রত্যেক সনাতনী শিক্ষার্থী এই ধরণের অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণ করে নিজের জীবনকে সুন্দরভাবে সাজানোর সুযোগ পায়।


 

চৈতন্য সন্দেশ মে-২০২২ প্রকাশিত

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here