বর্ণাঢ্য চেক পদযাত্রা-২০২১

0
20

নৃসিংহ চৈতন্য দাস: যদিও সমগ্রবিশ্ব বর্তমানে কোভিড-১৯ অতিমারির ভয়ঙ্কর থাবায় জর্জরিত, তথাপি চেক প্রজাতন্ত্রের ভক্তবৃন্দ ও অনুরাগীরা সম্প্রতি পরমেশ্বর ভগবান শ্রীকৃষ্ণের প্রীতি বিধানার্থে ২৯তম ‘চেক পদযাত্রা-২০২১’ মহা আড়ম্বরে উদযাপন করেন। অংশগ্রহণকারী ও প্রত্যক্ষদর্শীদের মতে, এই বারের পদযাত্রাটি এযাবৎ কালের সবচেয়ে সেরা পদযাত্রা। দীর্ঘ দিন ধরে কোভিড-১৯ এর কারণে পুরো দেশ লকডাউনে থাকায় এমনিতে জনজীবন বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছিল। কিন্তু সম্প্রতি পরিস্থিতি কিছুটা স্বাভাবিক হয়ে আসায় সরকার লকডাউন তুলে নেয়। যার ফলে পদযাত্রা কর্তৃপক্ষ গ্রীষ্মের ছুটিতে সবার মধ্যে উচ্চতর পারমার্থিক বিনোদনের মাধ্যমে প্রাণচাঞ্চল্য ফিরিয়ে আনতে একটি ‘বড়সড় পদযাত্রার চিন্তা

করে আসছিলেন। অবশেষে সকল প্রতিকূলতার অবসান ঘটে এবং অনেক বড় ও অত্যন্ত উদ্দীপনাময় পদযাত্রার আয়োজন করতে সক্ষম হয়। এই পদযাত্রার নেতৃত্বদানকারীদের মধ্যে প্রধান হচ্ছেন-শ্রীপাদ নৃসিংহ চৈতন্য দাস ও শ্রীপাদ ভরত কৃষ্ণ দাস। পদযাত্রাটি সুসিসে শহর হতে শুরু হয়ে ছিল, যেখানে এগার হাজারেরও অধিক মানুষের বসবাস। তাছাড়া এই শহরের মধ্য দিয়ে অতাভা নদী প্রবাহিত হয়েছে, যেটি এ শহরের বেশির ভাগ মানুষের মন হরণ করেছে। তার সৌন্দর্য্যের বদৌলতে। পদযাত্রাটি ১১০ কি.মি পথ অতিক্রম করে পিসেক শহরে পৌঁছে, যেখানে ত্রিশ হাজারের অধিক জনসংখ্যার বসবাস এবং এশহরটি জনসংখ্যার দিক হতে চেক প্রজাতন্ত্র দেশটির মধ্যে সর্ববৃহৎ। শ্রীপাদ নৃসিংহ চৈতন্য দাস বলেন, “আমরা সর্বদাই সতর্ক থাকতাম যাতে করে এ পদযাত্রাটির আয়োজন পণ্ড হয়ে না যায় এবং ভগবান শ্রীকৃষ্ণের অপ্রাকৃত কৃপা হতে কোন জীব যেন বঞ্চিত না হয়।” দু’সপ্তাহ ব্যাপী চলমান এ পারমার্থিক অ্যাডবেঞ্চারের সুফল সবার মধ্যে বিতরণ করতে, বিশেষ করে গৌর-নিতাইয়ের কৃপা বিলিয়ে দিতে সমস্ত ভক্তবৃন্দ আপ্রাণ প্রচেষ্টা করেন। তাছাড়া এবছর চারজন বিশেষ অতিথি শ্রীমৎ মহাবিষ্ণু স্বামী, শ্রীমৎ ভক্তিবৈভব স্বামী, শ্রীমৎ কদম্বকানন স্বামী ও শ্রীপাদ জয়গুরুদেব প্রভু উপস্থিত ছিলেন। দীর্ঘ ৩০ বছর পর এটি ছিল শ্রীমৎ মহাবিষ্ণু স্বামীর ২য় সফর। তিনি ‘হরিনাম রুচি গ্রুফ’ এর সাথে ছিলেন। অপরদিকে শ্রীমৎ ভক্তিবৈভব স্বামী, যিনি চেক প্রজাতন্ত্র দেশটিকে কৃষ্ণভাবনামৃত প্রচারের জন্য মনোনীত প্রতিনিধি জিবিসি।
তিনি এতোই মুগ্ধ হয়েছিলেন যে, এইবার দ্বিতীয়বারের মতো পদযাত্রায় অংশগ্রহণ করেন। এই বারের সবচেয়ে বিশেষত্ব ছিল শ্রীমৎ কদম্বকানন স্বামীর টিমটি, যেখানে রেকর্ড সংখ্যক ভক্ত অংশ গ্রহণ করেছিল। সর্বশেষ আকর্ষণ শ্রীপাদ জয় গুরুদেব দাস। তিনি শ্রীল প্রভুপাদের চারজন চেক প্রজাতন্ত্র শিষ্যবৃন্দের মধ্যে একজন। শ্রীমৎ মহাবিষ্ণু স্বামীর হরিনাম দলটি তাঁর কৌতুকপূর্ণ বিস্ফোরক শক্তিতে ফেটে যাচ্ছিল। আবার শ্রীমৎ কদম্বকানন স্বামী যখন স্ট্রাকোনিস শহরের মধ্য দিয়ে হরিনাম বিজয় মিছিলের নেতৃত্ব দিয়ে যাচ্ছিলেন, তখন মনে হচ্ছিল হরিনাম বজ্রপাত হচ্ছে এবং জনস্রোতকে মনে হচ্ছিল যেন জনসুনামী।
সর্বোপরি এবারের পদযাত্রাটি ছিল খুব আকর্ষণীয়। শহর হতে গ্রাম পর্যন্ত সর্বত্রই মানুষের মাঝে শ্রীশ্রী নিতাই-গৌর সুন্দর ও শ্রীল প্রভুপাদের অপ্রাকৃত কৃপা বর্ষণ করতে পেরে আয়োজকরাও অত্যন্ত খুশী।


 

চৈতন্য সন্দেশ নভেম্বর-২০২১ প্রকাশিত

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here