দিল্লী বিশ্ববিদ্যালয়ে আমন্ত্রিত ইস্‌কন

0
56
ইস্‌কন গুরুগ্রাম: দিল্লী বিশ্ববিদ্যালয়ে ইস্‌কন গুরুগ্রামের প্রেসিডেন্ট রামভদ্র দাস বক্তৃতা প্রদানের জন্য আমন্ত্রিত হয়েছিলেন। বিশ্ববিদ্যালয়েটি প্রতিষ্ঠার ১২ বছরের মধ্যেই এটি ভারতের শীর্ষস্থানীয় শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোর সারিতে স্থান লাভ করেছে। এটি বিশ্বের ১৫০টি শীর্ষস্থানীয় বিশ^বিদ্যালয়গুলোর মধ্যে স্থান লাভ করেছে। বিশ্ববিদ্যালটি তাদের আবিষ্কার এবং গবেষণার জন্য বিখ্যাত। উক্ত অনুষ্ঠানের প্রধান আকর্ষনের বিষয়বস্তু ছিল “অতিমার: অভিজ্ঞতা এবং প্রভাব”। এই অনুষ্ঠানে আরো আমন্ত্রিত ছিলেন প্রশাসনের বিশিষ্ট ব্যক্তিবর্গ, বিশিষ্ট সমাজসেবকবৃন্দ এবং বিভিন্ন বেসরকারী সেবামূলক প্রতিষ্ঠানের বিশিষ্ট ব্যক্তিবর্গ, যারা কোভিড পরিস্থিতিতে বিভিন্ন লোকালয়ে সেবা প্রদান করেছেন। রামভদ্র প্রভু তাঁর অভিজ্ঞতা এবং কোভিড পরিস্থিতিতে বরিষ্ট ভক্তদের খাদ্য বিতরণ কর্মসূচি হতে তাঁর অর্জিত শিক্ষাসমূহ তুলে ধরেছেন। এছাড়াও তিনি মানবতার সেবার জন্য শ্রীল প্রভুপাদের গ্রন্থ হতে অর্জিত তাঁর কিছু গভীর দার্শনিক অভিজ্ঞতা জানিয়েছেন।
অনুষ্ঠানটিতে অনুষদের প্রায় ৭৫জন সদস্য উপস্থিত ছিলেন। তারা শুনে অবাক হয়েছিলেন যে, ভক্তরা মানবতার জন্য নিজের জীবনের ঝুঁকিও নিতে পারে। অনুষ্ঠানের শেষের দিকে পদ্মশ্রী পুরুষ্কার প্রাপ্ত ড. সুরিন্দর সিংহ সান্টি ও বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য ড. অনুসিংহকে শ্রীমদ্ভগবদগীতা যথাযথ এবং ভগবানের প্রসাদ প্রদান করা হয়।

চৈতন্য সন্দেশ জুলাই – ২০২২প্রকাশিত

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here