চাতুর্মাস্য অনুসরণ

0
68
শ্রীল জয়পতাকা স্বামী মহারাজের সাথে।
“এখন চাতুর্মাস্য, যদি আপনি একাদশী থেকে পালন করা শুরু করেন। কেউ কেউ পূর্ণিমার দিন থেকেও শুরু করে। তো, আমি সাধারণত একাদশী থেকে শুরু করি যেহেতু আমি জানি কোনদিন একাদশী এবং সেদিন থেকে আমাদের পালন করতে হবে। কিন্তু পূর্ণিমা কোনদিন তা খুঁজে বের করা খুব সহজ নয়! আমি দামোদর মাসে একাদশীর আগের দিন শেষও করি। তো আমি পূর্ণভাবে ভীষ্মপঞ্চক পালন করতে পারি। “
একাদশীতে শ্রীল জয়পতাকা স্বামী মহারাজের প্রদত্ত প্রবচন থেকে উদ্ধৃত
 
চাতুর্মাস্য কী এবং কিভাবে পালন করবেন?
চাতুর্মাস্য মানে “চার মাস” যে সময়ে ভগবান বিষ্ণু ঘুমিয়ে থাকেন। আষাঢ় (জুন-জুলাই) মাসের শুক্লপক্ষের একাদশী যাকে শয়ন একাদশী বলা হয়, ওইদিন থেকে চাতুর্মাস্য পর্ব শুরু হয়। এই পর্ব শেষ হয় কার্তিক (অক্টোবর-নভেম্বর) মাসের শুক্ল পক্ষের একাদশীতে যা উত্থান একাদশী নামে পরিচিত। এই চারমাস চাতুর্মাস্য নামে পরিচিত। কোনো কোনো বৈষ্ণব এটি আষাঢ় মাসের পূর্ণিমা থেকে কার্তিক মাসের পূর্ণিমা পর্যন্তও পালন করে থাকেন। সেটাও চারমাসকাল সময়ব্যাপ্তি। এই ব্যাপ্তি, যা চান্দ্রমাস দ্বারা গণনা করা হয়, তাকে চাতুর্মাস্য বলে।
পালনের উদ্দেশ্য
“এই ব্রত পালনের প্রকৃত উদ্দেশ্য হচ্ছে এই চার মাসকাল ভোগবাসনা সংকুচিত করা। সেটা খুব একটা কঠিন নয়। শ্রাবণ মাসে শাক, ভাদ্র মাসে দই, আশ্বিন মাসে দুধ ও কার্তিক মাসে সকল প্রকার আমিষ আহার পরিত্যাগ করতে হয়। আমিষ আহার মানে হচ্ছে মাছ-মাংস আহার। তেমনই মসুর ডাল ও কলাইয়ের ডালকেও আমিষ বলে গণনা করা হয়। এই দুটি ডালে প্রচুর পরিমাণে প্রোটিন থাকে এবং অধিক প্রোটিনযুক্ত খাদ্যকে আমিষ বলে বিবেচনা করা হয়। মূলকথা হচ্ছে, চাতুর্মাস্যের এই চার মাসে ইন্দ্রিয়তৃপ্তিকর আহারাদি পরিত্যাগ করার অনুশীলন করতে হয়।”
(এ.সি. ভক্তিবেদান্ত স্বামী প্রভুপাদ, শ্রীচৈতন্য চরিতামৃত, মধ্যলীলা ৪.১৬৯ তাৎপর্য)
 
পালনের সময়কাল
প্রথম মাস: ৬ই জুলাই থেকে ৩রা আগস্ট ২০২০ (সবুজ পাতাজাতীয় সবজি এবং শাক বর্জন)
দ্বিতীয় মাস: ৪ঠা আগস্ট থেকে ২রা সেপ্টেম্বর ২০২০ (দধি বর্জন)
তৃতীয় মাস: ২রা সেপ্টেম্বর থেকে ১৭ই সেপ্টেম্বর ২০২০,
১৭ই অক্টোবর থেকে ৩০শে অক্টোবর ২০২০ (দুধ বর্জন)
পুরুষোত্তম অধিক মাস: ১৮ই সেপ্টেম্বর থেকে ১৬ই অক্টোবর ২০২০
চতুর্থ মাস: ১লা নভেম্বর থেকে ৩০শে নভেম্বর (মাষকলাই ডাল বর্জন)
 

মাসিক চৈতন্য সন্দেশ ও ব্যাক টু গডহেড এর ।। গ্রাহক ও এজেন্ট হতে পারেন

প্রয়োজনে : 01820-133161, 01758-878816, 01838-144699

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here