চট্রগ্রাম এর আদিবাসীদের দামোদর প্রদীপ প্রজ্বলন ও গীতা দান

প্রকাশ: ২১ মে ২০১৯ | ৭:১২ পূর্বাহ্ণ আপডেট: ২২ মে ২০১৯ | ৪:৪২ পূর্বাহ্ণ

এই পোস্টটি 852 বার দেখা হয়েছে

৫ই নভেম্বর,সোমবার দক্ষিণ মছজিদ্দার ছোট কুমিরা এিপুড়া পাড়ায় স্বাড়ম্বরে উদযাপিত হল দামোদর প্রদীপ প্রজ্বলন ও গীতাদান উৎসব।ইসকন ইয়ূথ ফোরাম চট্টগ্রামের পৃষ্ঠপোষকতায় গিরি গোবর্ধন ভয়েসের পরিচালনায় প্রায় ৩০০ স্থানীয় আদিবাসীদের নিয়ে এই অনুষ্ঠানটি উদযাপিত হয়।অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন ইসকন ইয়ূথ ফোরামের সিনিয়র সদস্য ও গিরি গোবর্ধন ভয়েসের ইনচার্জ শ্রীমান সুরেশ্বর মাধব দাস,শীতলচরণ দাস,অচিন্ত্য শ্যাম দাস এবং নন্দনকানন রাধামাধব মন্দিরের ব্যবস্থাপনা পরিষদের সিনিয়র সদস্য শ্রীমান জগদানন্দ দাস ব্রহ্মচারী ,ত্রিপুড়া পাড়ার সর্দার দেবেন্দ্র ত্রিপুড়া ও অন্যান্য ভক্তবৃন্দ। তাছাড়া দুবাই,ফ্রান্স ও ওমান থেকে কিছু প্রবাসী ভক্তও এতে অংশগ্রহণ করে স্কুল ও কলেজ পড়ুয়া ছাত্র-ছাত্রীদের মধ্যে গীতা বিতরণ করেন। গিরি গোবর্ধন ভয়েসের সদস্য সংকীর্তন গৌর দাসের সঞ্চালনায় শ্রীমান শীতলচরণ দাস এর সুমধুর কীর্তনে শুরু হওয়া অনুষ্ঠানে দামোদর লীলা নিয়ে আলোচনা করেন শ্রীমান সুরেশ্বর মাধব দাস ব্রহ্মচারী। পরবর্তীতে প্রায় ৩০০ জন আদিবাসীদের অংশগ্রহণে ভগবানের সম্মুখে প্রদীপ নিবেদন করা হয় এবং পরিশেষে প্রায় ৫০ জন ছাত্র ছাত্রীকে গীতা দান করা হয়। পুরো অনুষ্ঠান জুড়ে সবার মধ্যে আনন্দের জোয়াড় পরিলক্ষিত হয় এবং আদিবাসীরা কীর্তনের সাথে নিরবিচ্ছিন্ন নৃত্য করে আনন্দ প্রকাশ করে। হরে কৃষ্ণ।

সম্পর্কিত পোস্ট

‘ চৈতন্য সন্দেশ’ হল ইস্‌কন বাংলাদেশের প্রথম ও সর্বাধিক পঠিত সংবাদপত্র। csbtg.org ‘ মাসিক চৈতন্য সন্দেশ’ এর ওয়েবসাইট।
আমাদের উদ্দেশ্য
■ সকল মানুষকে মোহ থেকে বাস্তবতা, জড় থেকে চিন্ময়তা, অনিত্য থেকে নিত্যতার পার্থক্য নির্ণয়ে সহায়তা করা।
■ জড়বাদের দোষগুলি উন্মুক্ত করা।
■ বৈদিক পদ্ধতিতে পারমার্থিক পথ নির্দেশ করা
■ বৈদিক সংস্কৃতির সংরক্ষণ ও প্রচার। শ্রীচৈতন্য মহাপ্রভুর নির্দেশ অনুসারে ভগবানের পবিত্র নাম কীর্তন করা ।
■ সকল জীবকে পরমেশ্বর ভগবান শ্রীকৃষ্ণের কথা স্মরণ করানো ও তাঁর সেবা করতে সহায়তা করা।
■ শ্রীচৈতন্য মহাপ্রভুর নির্দেশ অনুসারে ভগবানের পবিত্র নাম কীর্তন করা ।
■ সকল জীবকে পরমেশ্বর ভগবান শ্রীকৃষ্ণের কথা স্মরণ করানো ও তাঁর সেবা করতে সহায়তা করা।