কাউকে হত্যা করবে না

0
56
আন্তর্জাতিক কৃষ্ণভাবনামৃত সংঘের প্রতিষ্ঠাতা-আচার্য কৃষ্ণকৃপাশ্রীমূর্তি শ্রীল অভয়চরণারবিন্দ স্বামী প্রভুপাদ কার্ডিনাল জিন্ ড্যানিয়েলের সাথে শ্রীল প্রভুপাদের এই কথোপকথনটি হয়েছিল ১৯৭৩-এর জুলাই মাসে প্যারিসের সন্নিকটে একটি খ্রীস্টান মঠে।

শ্রীল প্রভুপাদ : যীশুখ্রীস্ট বলেছিলেন, “তুমি কাউকে হত্যা করবে না।” তা হলে খ্রিস্টানরা পশুহত্যা করছে কেন?
কার্ডিনাল ড্যানিয়েল : খ্রিস্টান ধর্মে অবশ্যই হত্যা নিষিদ্ধ, তবে আমরা বিশ্বাস করি যে, মনুষ্য জীবন এবং পশু জীবনের মধ্যে পার্থক্য রয়েছে। মানুষের জীবন পবিত্র, কেননা ভগবানের প্রকৃতি অনুসারে মানুষকে তৈরি করা হয়েছে; তাই, কোনো মানুষকে হত্যা করা নিষিদ্ধ।
শ্রীল প্রভুপাদ : কিন্তু বাইবেলে তো বলা হয়নি, “মানুষ খুন করবে না।” সেখানে স্পষ্টভাবে বলা হয়েছে, “তুমি হত্যা করবে না।”
কার্ডিনাল ড্যানিয়েল : আমরা বিশ্বাস করি যে, কেবল মানুষের জীবনই পবিত্র।
শ্রীল প্রভুপাদ : সেটা আপনাদের কথা। কিন্তু প্রকৃত উপদেশ (কম্যান্ডমেন্ট) হচ্ছে, “তুমি হত্যা করবে না।” কার্ডিনাল ড্যানিয়েল: আহার সংগ্রহের জন্য মানুষকে পশুহত্যা করতে হয়।
শ্রীল প্রভুপাদ : না। মানুষ শাক-সবজি, ফলমূল এবং দুধ খেতে পারে।
কার্ডিনাল ড্যানিয়েল: মাংস একদম নয়?
শ্রীল প্রভুপাদ : না, মানুষের আহার্য হচ্ছে নিরামিষ। বাঘ আপনার ফল খেতে আসে না। তার নির্ধারিত খাদ্য হচ্ছে পশুর মাংস। কিন্তু মানুষের খাদ্য হচ্ছে শাক-সবজি, ফলমূল, শস্য এবং দুগ্ধজাত খাদ্য। তা হলে আপনি কি করে বলেন যে, পশুহত্যা পাপ নয়?
কার্ডিনাল ড্যানিয়েল: আমরা বিশ্বাস করি যে, এটি নির্ভর করে উদ্দেশ্যের ওপর। যদি ক্ষুধার্ত মানুষকে খাবার দেওয়ার জন্য পশুহত্যা করা হয়, তা হলে তা ন্যায়সঙ্গত।
শ্রীল প্রভুপাদ : কিন্তু আপনি একটা গাভীর কথা বিবেচনা করে দেখুন। আমরা তার দুধ খাই, তাই গাভী হচ্ছে আমাদের মাতা। সেটা আপনি স্বীকার করেন?
কার্ডিনাল ড্যানিয়েল : হ্যাঁ, নিশ্চয়ই।
শ্রীল প্রভুপাদ : সুতরাং গাভী যদি আপনার মাতা হয়, তা হলে আপনি কিভাবে তাকে হত্যা করা বরদাস্ত করতে পারেন? আপনি তার দুধ খান, আর তারপর সে যখন বৃদ্ধ হয়ে যায় এবং আর দুধ দেয় না, তখন তার গলা কাটেন। এটা কি মানবোচিত আচরণ? ভারতবর্ষে যারা মাংসাহারী তাদের জন্য নির্দেশ দেওয়া হয়েছে, পাঁঠা, শূকর, ভেড়া প্রভৃতি নিম্নস্তরের পশুদের হত্যা করে তাদের  মাংস আহার করতে। কিন্তু গো-হত্যা সব চাইতে গর্হিত অপরাধ। কৃষ্ণভাবনামৃত প্রচার করার সময় আমরা মানুষকে অনুরোধ করি, কোনো রকমের মাংস আহার না করতে এবং আমার শিষ্যরা কঠোরভাবে সেই নিয়মটি পালন করে। কিন্তু কোনো বিশেষ অবস্থায় অন্যদের যদি মাংস খেতেই হয়, তা হলে তারা নিম্নস্তরের পশু-মাংস আহার করতে পারে। কিন্তু গো-হত্যা করবেন না। সেটি হচ্ছে সব চাইতে বড় পাপ। আর যতক্ষণ মানুষ পাপকর্মে লিপ্ত থাকে, ততক্ষণ সে ভগবানকে জানতে পারে না। মানব জীবনের একমাত্র উদ্দেশ্য হচ্ছে ভগবানকে জানা এবং তাঁকে ভালোবাসা। কিন্তু আপনি যদি পাপকর্মে লিপ্ত থাকেন, তা হলে আপনি কখনও ভগবানকে জানতে পারবেন না আর তখন তো তাঁকে ভালোবাসার কোনো প্রশ্নই ওঠে না।
কার্ডিনাল ড্যানিয়েল : আমার মনে হয় না যে এটি তেমন একটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয়। আসল কথা হচ্ছে ভগবানকে ভালোবাসা। এক ধর্ম থেকে আর এক ধর্মের ব্যবহারিক উপদেশগুলির মধ্যে পার্থক্য থাকতে পারে।
শ্রীল প্রভুপাদ : হ্যাঁ, বাইবেলে ভগবানের ব্যবহারিক উপদেশ হচ্ছে যে, আপনি কাউকে হত্যা করতে পারেন না; তাই গো-হত্যা আপনার পক্ষে পাপ ।
কার্ডিনাল ড্যানিয়েল : ভগবান ভারতীয়দের বলেছেন যে, হত্যা করা ভাল নয়। আর তিনি ইহুদিদের বলেছেন…..
শ্রীল প্রভুপাদ : না, না। যীশুখ্রীস্ট শিক্ষা দিয়েছেন, “তুমি হত্যা করবে না।“ (Thou shalt not kill) তা হলে আপনি আপনার সুবিধামতো সেই অর্থকে বিকৃত করছেন কেন?
কার্ডিনাল ড্যানিয়েল : কিন্তু যীশুখ্রিস্ট ভেড়ার মাংস অনুমোদন করেছেন।
শ্রীল প্রভুপাদ : কিন্তু তিনি কখনও কসাইখানা খোলেন নি।
কার্ডিনাল ড্যানিয়েল: (হেসে) না, কিন্তু তিনি মাংস খেয়েছেন।
শ্রীল প্রভুপাদ : যখন অন্য কোনো খাবার থাকে না, তখন জীবন ধারনের জন্য মাংস খাওয়া যেতে পারে। সেটি অন্য কথা। কিন্তু রসনা তৃপ্তির জন্য কসাইখানায় পশুহত্যা করাটা সব চাইতে গর্হিত অপর । প্রকৃতপক্ষে, যতদিন পর্যন্ত এই সমস্ত হিংসাত্মক কসাইখানাগুলিকে বন্ধ করা হচ্ছে, ততদিন আপনারা যথার্থ মানব সমাজ গড়ে তুলতে পারবেন না। আর যদি জীবন ধারনের জন্য মাংসের প্রয়োজন হয়ও, তবু কখনই মাতৃবৎ যে পশু, সেই গাভীকে হত্যা করা উচিত নয়। সেটা হচ্ছে মানবিক শালীনতা। কৃষ্ণভাবনামৃত আন্দোলনে এই বিষয়টির ওপর আমরা বিশেষভাবে গুরুত্ব দিয়ে থাকি। আমরা কখনই পশুহত্যাকে অনুমোদন করি না। শ্রীকৃষ্ণ বলেছেন, পত্রং পুষ্পং ফলং তোয়ং যো মে ভক্ত্যা প্রযচ্ছতি। শাক-সবজি, ফল, ফুল ভক্তি সহকারে শ্রীকৃষ্ণের উদ্দেশ্যে ভোগ (খাদ্যদ্রব্য) নিবেদন করে প্রসাদরূপে তা গ্রহণ করে থাকি। আমরা গাছ থেকে অনেক ফল পেয়ে থাকি। কিন্তু সেই ফলগুলি নেওয়ার ফলে গাছটির কিন্তু মৃত্যু হয় না। অবশ্য যদিও একটি প্রাণীর খাদ্য অন্য আর একটি প্রাণী, কিন্তু তার অর্থ এই নয় যে, খাদ্যের জন্য নিজের মাকে হত্যা করতে হবে। গাভীরা নিরীহ; তারা আমাদের দুধ দেয়। নিজের জীবন ধারনের জন্য তাদের দুধ গ্রহণ করে তারপর তাদের কসাইখানায় নিয়ে গিয়ে হত্যা করা কখনই উচিত নয়। সেটা পাপ।


 

এপ্রিল -জুন ২০১৫ ব্যাক টু গডহেড

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here